বাল্যবিবাহ ও জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধ ক্যাম্পেইন

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর পত্নীতলায় ১১ডিসেম্বর’১৭ জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরাম, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এবং গার্লস এডভোকেসি এলায়েন্স এর সৌজন্যে পত্নীতলা উপজেলার আকবরপুর ইউনিয়ন এবং দিবর ইউনিয়নের উত্তরামপুর ফুটবল মাঠে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ ও জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে যুবদের করনীয় বিষয়ে গ্রামীণ ঐতিহ্যবাহি পাতা বা হাত খেলা, আলোচনা সভা এবং পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকাল ১০:০০ টায় উপজেলার আকবরপুর ইউনিয়নের চকমহেষ বড়বাবু একাডেমি মাঠে ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গার এবং বিকশিত নারী নেটওয়ার্কের আয়োজনে গ্রামীণ পাতাখেলা, লিফলেট বিতরণ, আলোচনা সভা এবং পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। তদুপলক্ষে আকবরপুর ইউনিয়ন বিকশিত নারী নেটওয়ার্কের সভাপতি এবং আকবরপুর ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য নিলুফা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন আকবরপুর ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোহাম্মাদ আলী, বিকশিত নারী নেটওয়ার্কে পত্নীতলা উপজেলা কমিটির সহ-সভাপতি লাভলী চৌধুরী, পত্নীতলা উপজেলা গণগবেষণা ফোরাম সভাপতি শাহিনুর রহমান, ইয়ূথ লিডার আরিফুল ইসলাম, আরাফাত হোসেন, মহব্বত হোসেন, নুর নবী, খাইরুল ইসলাম, এলাকা সমন্বয়কারী আসির উদ্দীনপ্রমূখ।

বক্তারা বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ এবং জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা রোধে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সবাইকে একযোগে কাজ করার উদাত্ত আহবান জানান। এছাড়াও বাল্যবিয়ের মতো গর্হিত কাজের মধ্যদিয়ে একটি কন্যাশিশুর জীবনকে সংকটাপন্ন করে তোলা হয়ে থাকে। এহেন পরিস্থিতিতে তৃণমূল পর্যায়ে জন-সচেতনতা বৃদ্ধি এবং স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বশীল নেতৃত্বের প্রতি গুরুত্বারোপ করা হয়। আলোচনা শেষে অংশগ্রহণকারী ৪টি দলের প্রত্যেককে পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে।

এদিকে বেলা ৩ টায় উপজেলার ৩নং দিবর ইউনিয়ন পরিষদ এবং ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের উদ্যোগে উত্তরামপুর ফুটবল মাঠে গ্রামীণ ঐতিহ্যবাহি পাতা বা হাত খেলা, আলোচনা সভা এবং পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। তদুপলক্ষ্যে দিবর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ সরকার, নিরমইল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, শিহাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, সাংবাদিক গোলাপ খন্দকার, বিকশিত নারী নেটওয়ার্ক নেত্রী লাভলী চৌধুরী, পত্নীতলা উপজেলা গণগবেষণা সভাপতি শাহিনুর রহমান, ইয়ূথ লিডার আরিফুল ইসলাম, আরাফাত হোসেন, নুরুন্নবি, মহব্বত হোসেন, শিউলি সুলতানা, আসির উদ্দীন, হারুনুর রশিদ, খাইরুল ইসলামপ্রসূখ উপস্থিত ছিলেন।

ঐতিহ্যবাহি পাতা খেলায় আব্দুল হান্নান খানের নেতৃত্বে ৭টি দলের জমকালো খেলা এলাকার প্রায় ২০০০ নারী-পুরুষ উপভোগ করে। উৎসুক জনতা হাত খেলার পাশাপাশি বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে নিজেদের অবস্থান কন্যাশিশুর পক্ষে রাখবেন এবং তাকে বিয়ে না দিয়ে আদর্শ মানুষে রুপান্তরিত করবেন বলে ঘোষণা দেন। কন্যাশিশুর অভিভাবক ইজাবুল হোসেন, আমিনা বেগম এবং আব্দুল কাদের বলেন- “আমরা বাল্যবিয়ে দেব না এবং হতেও দেব না, ইউনিয়ন পরিষদ যেন জন্ম নিবন্ধন সনদ সংশোধন না করেন এবং এভিডেভিট দেখে যেন বিয়ে পড়ানো না হয়।”

ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানগণ নিজেদের বাল্যবিবাহের বিপক্ষে জিরো টলারেন্স এবং সব ধরণের সহায়তার ঘোষণা দেন।

আলোচনা সভা শেষে ৭টি দলের প্রত্যেক সদস্যকে পুরস্কার হিসেবে নারিকেল বিতরণ করা হয়। উল্লেখ্য গার্লস এডভোকেসি এলায়েন্স, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এবং জাতীয় কন্যাশিশু এডভোকেসি ফোরাম সারা দেশে বাল্যবিবাহ ও জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে দীর্ঘ দিন ধরে বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজ করে চলেছে। যার লক্ষ্য আগামির সুন্দর বাংলাদেশ।

প্রিন্স, ঢাকা