তেল গ্যাস বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা কমিটির সংবাদ সম্মেলন

ফুলবাড়ী প্রতিনিধি: দিনাজপুর ফুলবাড়ীতে মঙ্গলবার স্থানীয় নিমতলামোড়স্থ সংগঠনের কার্যালয়ে সকাল ১০টায় তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি, ফুলবাড়ী উপজেলা শাখার উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি, ফুলবাড়ী উপজেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক মোঃ হামিদুল হক।

তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, ২০০৬ সালে ২৬ আগস্ট ৩ জনকে হত্যা, অসংখ্য নিরীহ জনসাধারণকে আহত-পঙ্গু করে এবং ব্যাপক জান মালের ক্ষতি সাধন করে তৎকালীন বিএনপি-জামাত জোট সরকার আন্দোলনকারী জনতার সাথে ৬ দফা চুক্তি করতে বাধ্য হয়। আর তৎকালীন বিরোধী দলের নেতা ও বর্তমানের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ছুটে এসে ফুলবাড়ী জনগণের সাথে একাত্ম হয়েছিলেন।

দল মত-নির্বিশেষে উল্লেখিত ৬ দফা চুক্তি অত্র অঞ্চলের প্রাণের দাবী হয়ে ওঠে। চুক্তির আংশিক শর্ত পূরণ হয়। কিন্তু থেকে যায় এশিয়া এনার্জিকে দেশ থেকে বহিষ্কার, তাদের দালাল ও সহযোগীদের বিরুদ্ধে হত্যাকান্ডের মামলা – বিচারের মতো গুরুত্বপূর্ণ শর্ত।

এসময় অন্যন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি, ফুলবাড়ী উপজেলা শাখার সদস্য সচিব জয় প্রকাশ গুপ্ত, সদস্য সঞ্জিত প্রসাদ জিতু, শফিকুল ইসলাম সিকদার, সামিউল ইসলাম চৌধুরী, মোশারফ হোসেন বাবু, হিমেল মন্ডল, বিপ্লবি ছাত্রমৈত্রীর আহবায়ক মুনিরুজ্জামান মুনির, রিস্কা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ানের সাধারণ সম্পাদক-নুরুল ইসলাম ফকির, কুলি শ্রমিক ইউনিয়ানের সাধারণ সম্পাদক হবিবর রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা আরো বলেন, ফুলবাড়ী থেকে প্রত্যাহারকৃত এশিয়া এনার্জি বারংবার এ অঞ্চলে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করে আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি ঘটাবার চেষ্টা করছে। আমরা আরও উদ্বিগ্ন ও বিক্ষুব্দ যে, স¤প্রতি এশিয়া এনার্জি আন্দোলনকারী ১৯ জন নেতাকর্মীর নামে হয়রানীমূলক পরপর দু’টি মিথ্যা মামলা করেছে। যা ৬ দফা চুক্তির পরিপন্থি।

উক্ত চুক্তিতে ছিল এশিয়া এনার্জির চিহ্নিত দালালদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ প্রসাশন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন। কয়লাখনি বিরোধী আন্দোলনের সাথে জড়িত নেতৃবৃন্দের নামে দায়েরকৃত মামলা-জিডি প্রত্যাহার করা হবে এবং এ বিষয়ে নতুন কোন মামলায় নেতৃবৃন্দকে জড়ানো হবে না।”এশিয়া এনার্জির ফুলবাড়ীর ২টি অফিস অবৈধভাবে পড়ে আছে।

কিন্তু তারা বাংলাদেশের বাহিরে লন্ডনে বসে আজ নতুন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হতে চায়। আজ লন্ডনে তারা ফুলবাড়িকে নিয়ে নতুনভাবে বেচা-কিনায় মেতে উঠেছে। আগামীদিনের বৃহত্তর কর্মসূচী বিদেশী কোম্পানী ও তার এদেশীয় শোষক-শাসককে মোকাবেলা করতে হবে।

প্রিন্স, ঢাকা