বিমানে কাঁদলেন ‘দঙ্গল কন্যা’

নিউজ ডেস্ক: ‘দঙ্গল’ অভিনীত ১৭ বছরের কিশোরী জায়রা ওয়াসিম বিমানে শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছেন। দিল্লি থেকে মুম্বাই যাওয়ার পথে মাঝ আকাশেই এক সহযাত্রী তার শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ জায়রার। ইতিমধ্যেই ইনস্টাগ্রামে সেই ঘটনার বিবরণ দিয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করেছে সে। ঘটনার কথা বলতে গিয়ে বারবার কেঁদে ফেলে জায়রা।

জায়রা জানিয়েছে, দিল্লি থেকে মুম্বাই যাচ্ছিল সে। বিমান ছাড়ার কিছু পর থেকেই অসভ্যতা শুরু করে দেন ওই ব্যক্তি। তার অভিযোগ, প্রথমে সিটের পাশে হাত রাখার জায়গায় নিজের পা তুলে দেন অভিযুক্ত।

প্রতিবাদ করায় তিনি বলেন, বিমানযাত্রার ধকলে তিনি ক্লান্ত, তাই বিশ্রাম নেওয়ার জন্য সেখানে পা তুলে রেখেছেন। জায়রা জানিয়েছে, কিছু পর বিমান কেবিনের লাইট ডিম হতেই ঘুমিয়ে পড়ে সে। ঘুমের মধ্যেই সে টের পায় তার ঘাড় ও পিঠে আপত্তিকর ভাবে পা দিচ্ছেন ওই ব্যক্তি। তার অভিযোগ, প্রতিবাদ করেও কোন ফল পাওয়া যায়নি।

এমনকি, বিমানে থাকা কেবিন ক্রু’রাও তাকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেনি বলে অভিযোগ কিশোরী অভিনেত্রীর।

মাঝরাতে বিধ্বস্ত অবস্থায় মুম্বাই বিমানবন্দরে নামার পরই কান্নায় ভেঙে পড়ে জায়রা। ঘটনায় পূর্ণাঙ্গ তদন্তের আশ্বাস দিয়েছে দেশটির বিমান সংস্থা।

এর আগে সম্প্রতি দুর্ঘটনার কবলে পড়ছিলেন জায়রা ওয়াসিম। যদিও এই দুর্ঘটনার ঘটনায় জায়রার কোনও চোট লাগেনি। স্থানীয়রা এসে জায়রাসহ বাকিদের উদ্ধার করেন। তবে জায়রার সহযাত্রীদের সামান্য চোট লেগেছে বলে জানা গেছে। ‘‌দঙ্গল’‌ সিনেমায় আমিরের ছোট মেয়ে গীতা ফোগটের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন জায়রা। দুর্দান্ত অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন জাতীয় পুরস্কার।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে জম্মু–কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতির সঙ্গে বৈঠক করে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন জায়রা। তখন আমির খানসহ অন্যান্য বলিউড অভিনেতারা জায়রার সমর্থনে মুখ খুলেছিলেন। ‌‌