প্রতিবন্ধি কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে প্রতিবন্ধি কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে জাহাঙ্গীর হোসেন (২৬) নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত। জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছরের কারাদন্ডের আদেশ প্রদান করা হয়। বুধবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল এবং জেলা ও দায়ারা জজ আদালতের বিচারক ড. একেএম আবুল কাশেম এ রায় দেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা জজ আদালতের পিপি জসিম উদ্দিন মামলার রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। সাজাপ্রাপ্ত আসামি জাহাঙ্গীর রায়পুর উপজেলা দক্ষিন কেরোয়া গ্রামের সধু মিয়ার ছেলে।
মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৭ নভেম্বর রায়পুরের কেরোয়া গ্রামের প্রতিবেশী বাক-প্রতিবন্ধি কিশোরীকে জোরপূর্বক জাহাঙ্গীর বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে। ধর্ষনের ঘটনা কাউকে না বলার জন্য তাকে ৭শ টাকাও দেয়া হয়। প্রতিবেশী তাদের চাচা-ভাতিজী সম্পর্ক ছিল।

পরে ঘটনাটি জানাজানি হলে কিশোরীর মা বাদি হয়ে ২৩ নভেম্বর জাহাঙ্গীরকে আসামী করে ধর্ষণ মামলা করেন। পরের বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারী পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। দৗর্ঘ শুনানী ও স্বাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে দোষী প্রমাণ হওয়ায় আদালত জাহাঙ্গীরকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড রায় দেন। রায়ের সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আসামী পক্ষের আইনজীবি জাকির হোসেন জাকির বলেন, আসামি ন্যায় বিচার পাননি। রায়টি সন্তোষজনক নয়। এ রায়ের বিপক্ষে আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করব। আশা করি উচ্চ আদালতে আসামি খালাস পাবে।

প্রিন্স, ঢাকা