পাকিস্তানের জনক জিন্নাহ’র মেয়ে আর নেই

ছবিতে জিন্নাহ'র ডানে দিনা ওয়াদিয়া

নিউজ ডেস্ক: ভারত ভাগের অন্যতম নায়ক, মুসলিম লীগের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা, পাকিস্তানের জনক কয়েদে আযম মহম্মদ আলী জিন্নাহ’র মেয়ে দিনা ওয়াদিয়া আর নেই। বার্ধক্যজনিত কারণে বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কের নিজ বাড়িতে তিনি শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

মৃত্যুর সময় তার ঘনিষ্ঠরা কাছেই ছিলেন। শুক্রবার তার পরিবার মৃত্যুর খবরটি সংবাদ মাধ্যমে নিশ্চিত করেন। দিনা ওয়াদিয়া ছিলেন জিন্নাহর একমাত্র মেয়ে।

তৎকালীন বোম্বের শিল্পপতি নেভিল ওয়াদিয়ার সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হোন তিনি। নেভিল ওয়াদিয়া ছিলেন পার্সি সম্প্রদায়ের।জিন্নাহ জীবিত অবস্থায় এই বিয়ে মেনে নিতে পারেননি। যে কারণে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত জিন্নাহ মেয়ের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ রাখেননি।

মেয়েকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন ভারতের লক্ষ লক্ষ মুসলিম ছেলে আছে, তাদের কোনো একজনকে বিয়ে করতে। জবাবে মেয়ে জিন্নাহকে বলেছিলেন, ভারতে লক্ষ লক্ষ মুসলিম মেয়ে ছিল তিনি কেন নিজে কোনো মুসলিম মেয়েকে বিয়ে করলেন না।

উল্লেখ্য, জিন্নাহ’র স্ত্রী রত্নাবাই ছিলেন পার্সি সম্প্রদায়ের মেয়ে। ১৯২৯ সালে জিন্নাহ’র স্ত্রী রত্নাবাই মারা যান। দিনা ওয়াদিয়ার মৃত্যুতে বলিউড সুপারস্টারে প্রীতি জিনতা শোক প্রকাশ করে এক টুইট বার্তা দেন।
প্রীতি জিনতা দিনা ওয়াদিয়ার নাতি নেস ওয়াদিয়াকে বিয়ে করেছিলেন। যদিও সেই বিয়ে ইতিমধ্যে ভেঙ্গে গেছে।দিনা ওয়াদিয়া বেশ কয়েক যুগ ধরে নিউইয়র্কে ছিলেন।

শেষ বয়সে তার বিয়েও ভেঙ্গে যায়। তারপরও ছেলে নুসলি ওয়াদিয়া ও তার সন্তানদের সঙ্গে সময় কাটাতেন। ৯৮ বছরের এই দীর্ঘ জীবনে তিনি মাত্র ২ বার পাকিস্তান গিয়েছিলেন। একবার ১৯৪৮ সালে জিন্নাহ’র মৃত্যুর সময়। আরেকবার ২০০৪ সালে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশাররফ ক্ষমতায় থাকার সময়। সেবার তিনি জিন্নাহর সমাধি দেখতে যান।

দিনা ওয়াদিয়া প্রথম জীবনে মুম্বাইতে ছিলেন। দিনা ওয়াদিয়ার জন্ম লন্ডনে। তাই জীবনের কিছু সময় তিনি লন্ডনে কাটিয়ে ছিলেন। তবে দিনা ওয়াদিয়ার অধিকাংশ সময় কেটেছে মুম্বাইয়ে।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম/এসডি