স্বামীর জন্য প্রস্তুত বিষে মারা গেল শ্বশুরবাড়ির ১৫ জন

নিউজ ডেস্ক : পাকিস্তানে স্বামীকে হত্যার জন্য বিষ মেশানো দুধ দিয়েছিলেন এক নারী, কিন্তু স্বামী সেটা গ্রহণ করেননি। পরবর্তীতে সেই দুধ শাশুড়ি লাচ্ছি বানাতে ব্যবহার করলে সেটা খেয়ে ওই পরিবারের ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।
 
এই ঘটনায় ১২ জনও গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 
 
পাঞ্জাবের মুজাফফরগড়ের পুলিশ জানায়, আসিয়া নামের ওই নারী তাকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে দুই মাস আগে বিয়ে দেয়ার প্রতিশোধ নেয়ার জন্য প্রেমিক শহীদ ও জরিনা মাই নামের এক আত্মীয়ের সঙ্গে  মিলে স্বামীকে হত্যা করার ছক করেছিলেন।
 
কয়েকদিন আগে নিজের বাড়ি থেকে জোর করে শ্বশুরবাড়িতে ফেরত পাঠানো হয় আসিয়াকে। ফিরে এসে গত ২৪ অক্টোবর স্বামী আমজাদের দুধ খাওয়ার পাত্রে বিষ মেশায়। আর সেই বিষ মেশানো দুধ দিয়ে লাচ্ছি তৈরি করা হলে সেটা খেয়ে সোমবার ১৩ জনের মৃত্যু হয়। মঙ্গলবার হাসপাতালে আরো দুইজনের মৃত্যু হয়।
 
পুলিশ আসিয়া, তার প্রেমিক শহীদ ও জরিনা মাইকে গ্রেফতার করেছে। গণমাধ্যমের সামনে আসিয়াকে নিয়ে আসা হলে তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি।
 
আসিয়া বলেন, শহীদ আমাকে দুধের মধ্যে বিষ মেশাতে বলে কিন্তু আমি সেটা করিনি। সে আমাকে বিয়ে করার কথা বললেও আমি অস্বীকার করি।
 
গ্রেফতার হওয়া তিনজনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। জিও নিউজ পাকিস্তান।