যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র ভারতকে দেয়ায় নাখোশ চীন

নিউজ ডেস্ক: ভারতের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক সুদৃঢ় হাওয়ায় উদ্বেগ বাড়াচ্ছে চীন ও পাকিস্তানের। ভারতের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের সশস্ত্র ড্রোন বিক্রির সিদ্ধান্ত বিবৃতি দিয়ে নারাজি দিয়েছে পাকিস্তান।

চীনও যে বিষয়টি ভালো ভাবে নিচ্ছে না তা আগেই ধারণা করা গিয়েছিল। হলও তাই। সোমবার যুক্তরাষ্ট্রে নিয়োজিত চীনের রাষ্ট্রদূত কুই তিয়ানকেউ নিজের প্রতিক্রিয়া দেন।

ইন্দো-প্যাসেফিক অঞ্চলে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের ভূমিকাকে ভালো চোখে দেখছে না তার দেশ। তিয়ানকেউ বলেন, কোনো দেশ চীনকে দমিয়ে রাখতে পারবে না। যে উদ্দেশে যুক্তরাষ্ট্র ভারতকে অস্ত্র বিক্রি করছে সেটি পূরণ হবে না তাদের।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন ভারতকে সশস্ত্র ড্রোন ও উচ্চ প্রযুক্তির সামরিক সরঞ্জাম কেনার প্রস্তাব দেন। ভারতের দাবি করা এসব প্রস্তাব এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে বিবেচিত ছিল।

ট্রাম্প প্রশাসন এখন নীতিগতভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এসব সামরিক অস্ত্র তারা ভারতের কাছে বিক্রি করবেন। যুক্তরাষ্ট্র ভারতকে সামরিক দিক থেকে শক্তিশালী দেখতে চায়। এমন ইঙ্গিত পাওয়ার পর চীন এখন বলতে শুরু করেছে তাদেরকে দমিয়ে রাখতে পারবে না কেউ। কারণ চীনের বিশাল সমারিক শক্তিকে কাউন্টার দিতে যুক্তরাষ্ট্রের ভারতকে প্রয়োজন।

এদিকে জাপানকে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র চার দেশের সামরিক জোট করতে যাচ্ছে। এই জোটের অন্য দুটি দেশ ভারত ও অস্ট্রেলিয়া।

যুক্তরাষ্ট্র-ভারত-জাপান-অস্ট্রেলিয়া মিলে ইন্দো-প্যাসেফিক অঞ্চলের চার পক্ষীর সংলাপ শুরু হচ্ছে। এই সংলাপের উদ্যোক্তা আবার জাপান। আর এই জোটকে আতঙ্কিত করে তুলছে চীনকে। যে কারণে চীনের রাষ্ট্রদূত বলছেন, যুক্তরাষ্ট্র যে উদ্দেশ্য নিয়ে ভারতকে সহায়তা করছে সেই লক্ষ্য পূরণ হবে না। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে যুক্তরাষ্ট্র চীনকে দমিয়ে রাখার জন্য ভারতকে শক্তিশালী করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আগামী মাসে চীন ও তার প্রতিবেশী দেশগুলোতে সফরে আসছেন। ১০ দিনের সফরে ট্রাম্প চীন, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, ভিয়েতনাম এবং ফিলিপাইনে যাবেন।

ভাষান্তর: সুমন দত্ত