‘চলচ্চিত্রে নিয়মিত অভিনয়ের জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছি’

নিউজ ডেস্ক: কাজী নওশাবা। অভিনেত্রী ও মডেল। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত চলচ্চিত্র ‘ঢাকা অ্যাটাক’। এই চলচ্চিত্রের সাফল্য, অভিনয় নিয়ে ভাবনা ও অন্যান্য বিষয়ে কথা হলো তার সঙ্গে—

‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিতে কাজ করতে গিয়ে কখনও হয়েছিল, ব্যাপ্তি কম হওয়ার পরও আপনার চরিত্রটি দর্শকের মনে দাগ কাটতে পারে?
এত হিসাব-নিকাশ করে তো কাজ করিনি। কারণ আমি মনে করি, অভিনয়ের জন্য ছোট-বড় না দেখে চরিত্র কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেটা দেখা জরুরি। ভালো কাজের জন্য সাহসী হতে হয়। যতটুকু সুযোগ থাকে সেটুকুর মধ্যেই নিজের সেরা কাজটা তুলে ধরতে হয়। এজন্যই সফল হবো কি হবো না, সে ভাবনা ঝেড়ে ফেলে নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করে গেছি।

ছবি মুক্তির পর কি মনে হয়েছে আপনার সিদ্ধান্ত ভুল ছিল না?
দীপংকর দীপন নাট্য নির্মাতা হিসেবে প্রশংসিত হলেও, আগে কখনও চলচ্চিত্র নির্মাণ করেননি। তার সঙ্গে কোনো কাজের অভিজ্ঞতা ছিল না আমার। এরপরও অভিনয়ে রাজি হয়েছি। কারণ ছবির গল্প শুনে বুঝেছি এর প্রতিটি চরিত্রই গুরুত্বপূর্ণ। এখন দর্শকের প্রশংসা পেয়ে মনে হচ্ছে, সিদ্ধান্ত যেমন সঠিক ছিল, তেমনি ভালো কিছু করার চেষ্টা বৃথা যায়নি।

অন্যান্য ছবির কাজ কতদূর এগোল?
‘স্বপ্নবাড়ি’, ‘আলগা নোঙ্গর’, ‘চন্দ্রবতী’ তিনটি ছবির কাজ প্রায় শেষ। ছোটখাটো কিছু কাজ বাকি আছে। সেগুলো শেষ হলেই একে একে তিনটি ছবি মুক্তি পাবে। এর মধ্যে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘কবর’-এর প্রিমিয়ার হয়ে গেছে, এখন মুক্তির জন্য প্রস্তুত।

চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্যই কি টিভিতে কাজ কমিয়ে দিয়েছেন?
ঠিকই ধরেছেন। বড় পর্দায় নিজেকে তুলে ধরার স্বপ্ন নিয়েই এ অঙ্গনে পা রেখেছিলাম। অনেকে নিরুৎসাহিত করেছেন। তারপরও থেমে থাকিনি। তখন থেকে এখনও চলচ্চিত্রে নিয়মিত অভিনয়ের জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছি। ভালো ছবির জন্য অপেক্ষা করতে আপত্তি নেই।