রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশ করানোর চেষ্টায় বিএসএফ, সতর্ক বিজিবি

নিউজ ডেস্ক : ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্যরা যশোরের বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে রোহিঙ্গা মুসলমানদের বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করানোর চেষ্টা করছে বলে বিজিবি জানিয়েছে। বিজিবির কঠোর অবস্থানের কারণে বার বার চেষ্টা করেও বিএসএফ সদস্যরা তাদের ঢুকাতে ব্যর্থ হচ্ছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও সাংবাদিকরা জানিয়েছেন, ইছামতি নদীর ওপারে ভারতের আংরাইলে সেদেশের বিএসএফ সদস্যরা শনিবার সন্ধ্যা থেকে ২০-২৫ জন রোহিঙ্গাকে সীমান্তে জড়ো করে বাংলাদেশের দিকে ঠেলে দেয়ার চেষ্টা করছে। রোদ-বৃষ্টির মধ্যে তাদেরকে খোলা আকাশের নিচে জড়ো করে রেখেছে বিএসএফ। সেখানকার কোনো গ্রামবাসীকে পাশে আসতে দিচ্ছে না। এতে তারা খেয়ে, না খেয়ে অমানবিক জীবন যাপন করতে দেখা গেছে। 

এ বিষয়ে ২১ বিজিবির কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল তারিকুল হাকিম জানান, নদীর তীরে ওই রোহিঙ্গাদের একত্রিত করে রেখেছে বিএসএফ। তাদের মারধর করে বাংলাদেশে ঠেলে দেয়ার চেষ্টা করছে। সে জন্য বিজিবি সতর্ক অবস্থায় আছে।

যশোরের শার্শা উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু বলেন, “আমরা মানবিক কারণে অনেক রোহিঙ্গাকে দেশে আশ্রয় দিয়েছি। আমাদের তো এ ভার বহন করবার একটা সীমা আছে। এ মুহূর্তে আবার প্রতিবেশি বন্ধু রাষ্ট্র ভারত এভাবে তাদের দেশে রোহিঙ্গাদের আমাদের দেশে জোর করে ঠেলে পাঠায় তবে এটা অমানবিক কাজ হবে।”

এর আগে গত ১১ অক্টোবর ভোরে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পদ্মশাকরা সীমান্ত দিয়ে ১০ শিশু, ছয় নারীসহ ১৯ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ঠেলে দেয় বিএসএফ। বাংলাদেশে প্রবেশ করার পর তাদের আটক করে বিজিবি।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে কঠোর মনোভাব গ্রহণ করেছে ভারত। সেদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর পদক্ষেপ নেয়ার পাশাপাশি মোদি সরকার মিয়ানমার ও বাংলাদেশ দিয়ে যাতে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা ভারতে ঢুকতে না পারে, তা নিশ্চিত করতে টহল জোরদার করেছে।