লক্ষীপুরে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় ৯ জেলের দন্ড

লক্ষীপুর প্রতিনিধি: প্রজনন মৌসুমে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে লক্ষীপুরের রামগতির মেঘনা নদীতে ইলিশ শিকারের সময় ৯ জেলেকে আটক করা হয়েছে।এসময় একটি জেলে নৌকা ও ২০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। রবিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে রামগতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আজগর আলী এ অভিযান পরিচালনা করেন। তিনি আটক জেলেদের প্রত্যেককে এক মাস করে কারাদন্ডের আদেশ দেয়। এসময় জব্দ জালগুলো অগ্নিসংযোগ করে ধ্বংস করা হয়।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন রামগতি উপজেলার চরআলগী এলাকার মো: দুলাল উদ্দিন, মো: ইব্রাহিম উদ্দিন, মো: এরশাদ, আবদুল মোতালেব, মো: হেলাল, মো: রায়হান উদ্দিন এবং নোয়াখালীর সুবর্নচরের মো: সিরাজ উদ্দিন, নূর আলম ও মো: হানিফ।

রামগতি উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা কামাল উদ্দিন বলেন, সকালে মেঘনা নদীর চরগজারিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে জেলেদের আটক, নৌকা ও জাল জব্দ করা হয়। পরে জেলেদের সাজা দেওয়া হয়। নিষেধাজ্ঞাকালীন নদীতে সার্বক্ষনিক এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

প্রসঙ্গত, ১ থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশের ভরা প্রজনন মৌসুম। ২২ দিন ইলিশসহ সব প্রজাতির মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার। এজন্য লক্ষীপুরের রামগতি থেকে চাঁদপুরের ষাটনল পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার মেঘনা নদী এলাকায় মাছ ধরা যাবে না। এসময় মাছ শিকার, পরিবহন, মজুত, বাজারজাতকরণ ও বিক্রি নিষিদ্ধ। এ আইন আমান্য করলে জেল অথবা জরিমানা এবং উভয় দন্ডের বিধান রয়েছে।

জামাল উদ্দিন বাবলু
লক্ষীপুর