প্রধানমন্ত্রীর রাশিয়া চীন ভারত সফর করা উচিত: ফখরুল

নিউজ ডেস্ক:  রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে আবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে রাশিয়া, চীন ও ভারত সফরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেছেন, ‘আমরা বারবার বলে আসছি, কেউ করে দিয়ে যাবে না। চীন-রাশিয়া-ভারত মিয়ানমারের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর চীন-রাশিয়া-ভারতে যাওয়া উচিত। তাদের বোঝানো প্রয়োজন, রোহিঙ্গা সংকট বাংলাদেশের জন্য বিশাল সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে, মানবিক সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

শুক্রবার বিকেলে এক আলোচনা সভায় নিরাপত্তা পরিষদের ‘নিষ্ফল’ বৈঠক নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বিএনপি মহাসচিব এই আহ্বান জানান।

কাকরাইলের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে জিয়া সাংস্কৃতিক সংস্থার (জিসাস) ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে জিয়াউর রহমান সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সংগঠনের সভাপতি আবুল হাসেম রানার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবদুল হাই শিকদারসহ অন্যরা বক্তব্য রাখেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সারা বিশ্ববিবেককে আবেদন জানান। আপনারা এগিয়ে আসুন। মিয়ানমারকে বাধ্য করুন গণহত্যা বন্ধ করতে এবং তাদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘কী মানবেতর জীবন তারা যাপন করছে কল্পনার বাইরে! মাথার ওপর ছাদ নেই। ছোট ৫-১০ দিনের শিশুকে বুকের মধ্যে নিয়ে একটা ছোট প্লাস্টিকে ঢেকে রেখেছে, তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করছে। এই নৃশংসতা সহ্য করার মতো নয়। একটি জাতিকে সম্পূর্ণভাবে নিশ্চিহ্ন করার জন্য মিয়ানমার সরকার কাজ করছে, আমরা (বাংলাদেশ) চুপ করে বসে আছি, একটা শক্ত কথাও বলি না।’

রোহিঙ্গাদের প্রশ্নে চীন ও রাশিয়ার ভূমিকার সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘কী দেশে আমরা বাস করছি, কী পৃথিবীতে আমরা বাস করছি, যেখানে মনুষ্যত্বের কোনো মূল্য নেই, মানবতার কোনো মূল্য নেই। শুধু ক্ষমতা আর তার অর্থনৈতিক স্বার্থই বড় হয়ে দাঁড়ায়! ‘

কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের জন্য সরকারের কোনো ত্রাণ নেই অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘সরকার ও আওয়ামী লীগের কোনো ত্রাণ এখন পর্যন্ত নেই, যা দিচ্ছে সাধারণ মানুষ। বিদেশ থেকে ত্রাণসামগ্রী আসছে, সেই বিদেশি ত্রাণ দেওয়া হচ্ছে।’

রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় জাতীয় ঐক্যের বিকল্প নেই বলে আবারও মন্তব্য করেন তিনি।