চলচ্চিত্র অসাম্প্রদায়িক সমাজ নির্মাণের আত্মা: ইনু

নিউজ ডেস্ক: সমাজ বিনির্মাণে চলচ্চিত্রের ভূমিকা তুলে ধরে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘চলচ্চিত্র সমাজের খলচরিত্র জঙ্গিবাদের বিনাশে রাজনৈতিক শক্তির সহশক্তি। চলচ্চিত্র অসাম্প্রদায়িক এবং মানবিক সমাজ নির্মাণের আত্মা। এই চলচ্চিত্রকে নিজের শেকড়ের ওপর দাঁড়াতে হবে। তাহলে এর ভবিষ্যৎ সুদৃঢ় হবে।’

শুক্রবার রাজধানীর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ইসফেন্দার জাহিদ মিলনায়তনে ত্রিকোণ চলচ্চিত্র শিক্ষালয় আয়োজিত চলচ্চিত্র কর্মশালার সনদপত্র বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

চলচ্চিত্র কমপ্লেক্স নির্মাণের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘চলচ্চিত্রের উন্নয়নের জন্য সরকার চেষ্টা করছে। প্রায় ৪০০ কোটি টাকা ব্যয় করে বিএফডিসি সংলগ্ন ৭ বিঘা জমিতে ১৬ তলার পূর্ণাঙ্গ চলচ্চিত্র কমপ্লেক্স নির্মিত হবে। যেখানে ১০টি সিনেপ্লেক্স থাকবে। ৬ মাসের মধ্যে এ প্রকল্প পরিকল্পনা চূড়ান্ত হবে।’

বিএনপি সরকারের দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘২০০০ সাল পর্যন্ত সারা দেশে সিনেমা হল ছিল ১৩৯৯টি। ২০০১ সাল থেকে হল কমতে শুরু করে, বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে অধঃপতনের ধারা শুরু হয়। হল সংখ্যা আজ দাঁড়িয়েছে ৩২০ এ।’

অনুষ্ঠানে ৩ বছরে ৮টি ব্যাচের কোর্স করা ৫৬ নির্মাতাকে সনদ বিতরণ করেন তথ্যমন্ত্রী। সনদ প্রাপ্তদের বিভিন্ন মাধ্যমে কাজ করার সুযোগ দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

ত্রিকোণ চলচ্চিত্র শিক্ষালয়ের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ইহতিশাম আহমেদের সভাপতিত্বে ও মনিরা পারভীনের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিবারের আহ্বায়ক চিত্রনায়ক ফারুক, চলচ্চিত্র লেখক সমিতির সভাপতি জামান আখতার, চিত্রকর নাজিব তারেক ও চিত্রনির্মাতা আশরাফ শিশির।