তরুণদের নিয়ে নোয়াখালীতে ‘ জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষমাত্রা বাস্তবায়ন ‘ বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

নিউজ ডেস্ক : দক্ষিণ এশিয়ার তরুণদের নিয়ে সাস্টেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল বাস্তবায়ন এর লক্ষ্যে নোয়াখালীতে এই প্রথম বারের মত প্রায় ২৫০ জন তরুণ দের নিয়ে ২৬শে সেপ্টেম্বর টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে,নোয়াখালীতে একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সেমিনার এর আয়োজন করে ভিসাইল এবং সহযোগিতায় ছিল ব্লাডম্যান , লিভ ফাউন্ডেশন। শুধু জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়নলক্ষমাত্রা নয় দক্ষ্য তরুণ গড়ার কাজটিও করবে “ভিশন ২০২০” প্রকল্প।উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন জনাব ইঞ্জিনিয়ার খান মোহাম্মাদ ফয়সাল। অনুষ্ঠানে বিশেষ অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার সোলায়মান বারী, ভিশন ২০২০ বাংলাদেশ টিমের পরিচালক জিমি মজুমদার ও প্রজেক্ট ম্যানেজার খুরশিদ আলম। এছাড়া প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্হিত ছিলেন লিভ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ফাহিম হাসান নিহান ।

অনুষ্ঠানে “ভিশন ২০২০”র পরিচালক জিমি মজুমদার বলেন,”আমরা ২০২০ সালের মধ্যে ৫০০০০ দক্ষ তরুণ তৈরি করব যারা ২০২৫ সালের মধ্যে ৭ কোটি ৫০লাখ মানুষকে প্রশিক্ষিত করে আত্ন উন্নয়ন তথা দেশ ও জাতির উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে”। উক্ত অনুষ্ঠানে SDG নিয়ে আলোচনা হয়। এ প্রসঙ্গে খুরশিদ আলম বলেন ভিশন ২০২০ এর প্রধান লক্ষ হলো SDG কে বাস্তবায়ন করা এবং যেটা দেশকে স্বনির্ভর হতে সাহায্য করবে।।২০০০+ স্বপ্ন দেখা তরুণ নিয়ে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ কে বিশ্বের কাছে রোল মডেল করার লক্ষ্যে কাজ করছে “ভিশন ২০২০” প্রকল্প ।

“ভিশন ২০২০” USAID এর বিভিন্ন প্রোজেক্ট বাস্তবায়ন এর জন্য তরুণদের নিয়ে সারাদেশে কাজ করবে। এক্ষেত্রে USAID র এ-কার্ড এর জনক বিদ্যুৎ মহলদার “ভিশন ২০২০ সাউথ এশিয়া”কে আশ্বস্ত করেন তারা কৃষি নির্ভর বাংলাদেশ এর উন্নয়নের জন্য A-Card সহ agricultural extension system এর মত আরো অনেক প্রকল্প নিয়ে এই তরুণদের সাথে কাজ করবে ।

এছাড়া “ভিশন ২০২০” প্রকল্পের সাথে যুক্ত আছেন বাংলাদেশের বিভিন্ন যুব সংঘ , বিভিন্ন সংস্থা । ৭ কোটি ৫০লাখ তরুণের স্বপ্ন পূরণের জন্য জাতিসংঘ সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা ও সরকারী , বেসরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাহায্য ও সহযোগিতা ও কামনা করছে ভিশন ২০২০” জানালেন টিম নোয়াখালীর লিডার আশফাকুর রহমান নোমান।