রোহিঙ্গা মুসলিমদের মৌলিক অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে

সবুজ প্রতিবেদক: রোহিঙ্গা নির্যাতন ও গণহত্যার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভায় জমঈয়তে আহলে হাদীস নেতৃবৃন্দ মিয়ানমারে মুসলিম গণহত্যা নতুন কোন বিষয় নয়। ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যাবে যে, আজকের এই নির্মম হত্যাকাÐ ১৯৪২ সাল থেকে চলে আসা জাতিগত বিদ্বেষেরই ধারাবাহিকতা। আমরা এই হত্যাকাÐের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে এ নির্মম নিষ্ঠুরতা বন্ধের জোর দাবি জানাচ্ছি। সেই সাথে মিয়ানমার সরকারের প্রতি রোহিঙ্গা মুসলিমদের মৌলিক অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার পাশাপাশি কফি আনান কমিশনের সুপারিশসমূহ অনতিবিলম্বে বাস্তবায়নের আহŸান জানাচ্ছি।

বাংলাদেশ জমঈয়তে আহলে হাদীস আয়োজিত মিয়ানমার সরকারের সেনাবাহিনী কর্তৃক রোহিঙ্গা নির্যাতন ও গণহত্যার বিরুদ্ধে এক প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতির ভাষণে দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আযহার উদ-দীন এ আহŸান জানান।

১৮ সেপ্টেম্বর, সোমবার বেলা ৩টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার শুরুতেই পবিত্র কুরআন তিলাওয়াত করেন মাদরাসা মুহাম্মাদীয়া আরাবীয়ার মুহাদ্দিস শাইখ মুহাম্মদ আবূ হানীফ মাদানী। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন সংগঠনের সেক্রেটারী জেনারেল মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ খান মাদানী, সমাজ সেবা ও জনকল্যাণ বিষয়ক সেক্রেটারী মাসউদুল আলম উমরী, সাবেক শুব্বান সভাপতি নূরুল আবসার প্রমুখ।
স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন কেন্দ্রীয় জমঈয়তের সহ-সভাপতি প্রফেসর ড. দেওয়ান আব্দুর রহীম।

সেক্রেটারী জেনারেল মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ খান মাদানী বলেন, যে কোন আপদকালীন সময়ে বাংলাদেশ জমঈয়তে আহলে হাদীস সব সময় এ দেশের মানুষের পাশে আছে। কুরআন ও সহীহ সুন্নাহ’র দাওয়াত ও তাবলীগের পাশাপাশি আর্তমানবতার সেবা জমঈয়তের কর্মসূচির অংশ। জমঈয়ত অরাজনৈতিক সংগঠন হলেও দেশ ও মানুষের কল্যাণে সব সময় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে থাকে। তিনি আরও বলেন, সরকার রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ের ক্ষেত্রে যে উদ্যোগ নিয়েছে তা প্রশংসাযোগ্য। তবে ত্রাণ বিতরণে যে বিশৃঙ্খলা পরিলক্ষিত হচ্ছেÑ অতিসত্ত¡র এ ক্ষেত্রে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণেরও আহŸান জানাচ্ছি।

এ সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন কোষাধ্যক্ষ আলহাজ্জ মোজাম্মেল হক, সাংগঠনিক সেক্রেটারী আব্দুন নূর বিন আব্দুল জব্বার মাদানী প্রমুখ। সভা সঞ্চালনের দায়িত্বে ছিলেন সংগঠনের যুগ্ম সেক্রেটারী জেনারেল উপাধ্যক্ষ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ।