বুদ্ধের পথ মেনে রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধ করুন: দালাই লামা

নিউজ ডেস্ক: তিব্বতের আধ্যাত্মিক ধর্মীয় নেতা দালাই লামা মিয়ানমারে চলমান রোহিঙ্গা সংকটে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, মহামতি গৌতম বুদ্ধের পথ অনুসরণ করে রোহিঙ্গাদের ওপর সহিংসতা বন্ধ করুন।

তিনি শনিবার গণমাধ্যমের সামনে এ কথা বলেন। খবর ইকোনমিক টাইমসের।

চতুর্দশ দালাই লামা বলেন, মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দলের নেতা অং সান সু চিকে জানাতে চাই, যারা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে ‘হয়রানি’ করছে, তাদের এসব আগ্রাসী কর্মকাণ্ড করার আগে মহামতি বুদ্ধের কথা একবার মনে করা উচিত।

বুদ্ধের অহিংস পথ অনুসরণ করে সহিংস কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে রোহিঙ্গাদের ওপর আক্রমণকারীদের আহ্বান জানান তিনি। এর আগে তিনি বলেছিলেন, আমি অনুভব করি, এমন জায়গায় থাকলে গৌতম বুদ্ধ ওই অসহায় মুসলমানদের সাহায্য করতেন।

মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সঙ্গে সেনাবাহিনীর বহুদিন ধরে চলমান সংঘর্ষ-সহিংসতা সঙ্কট সমাধানে ২০১৬ সালের আগস্টে গঠিত হয় অ্যাডভাইজরি কমিশন অন রাখাইন স্টেট। জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের নেতৃত্বে ওই কমিশন এক বছরের তদন্তের চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয় মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দলের প্রধান অং সান সু চির কাছে। গত ২৪ আগস্ট ৬৩ পৃষ্ঠার ওই প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই রাতে ত্রিশটি পুলিশ ও সেনাচৌকিতে রহস্যজনক হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় নিহত হয় নিরাপত্তা বাহিনীর ১২ সদস্য। হামলার জন্য রোহিঙ্গা ‘জঙ্গি’দের দায়ী করে জবাব হিসেবে সেনাবাহিনী পুরো অঞ্চলে হত্যাযজ্ঞ শুরু করে।

আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন, আনান কমিশনের রিপোর্ট বাস্তবায়ন না করার উদ্দেশ্যেই মিয়ানমারের সেনাবাহিনী জঙ্গি হামলার ধুয়া তুলে রোহিঙ্গাদের ওপর এই হত্যাযজ্ঞ শুরু করে। সেনাবাহিনীর হত্যা নির্যাতনের মুখে গত ১৬ দিনে ৩ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। আর রাখাইনে প্রাণ হারিয়েছেন এক হাজারের বেশি নারী-পুরুষ।