সামাজিক উন্নয়নে ৬ মাসে ব্যাংকগুলোর ব্যয় ৩২৬ কোটি

নিউজ ডেস্ক:  শিক্ষা, স্বাস্থ্য, দুর্যোগ মোকাবেলা ইত্যাদি সামাজিক উন্নয়ন খাতে কর্পোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতার (সিএসআর) অংশ হিসেবে বছরের প্রথম ষান্মাসিকে (জানুয়ারি-জুন) ৩২৬ কোটি টাকা ব্যয় করেছে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো। শিক্ষাখাতকে এগিয়ে নিতে সবচেয়ে বেশি ১২৭ কোটি টাকা সিএসআর থেকে ব্যয় করা হয়েছে। তবে সিএসআর ব্যয়ে বেসরকারি ব্যাংকগুলো এগিয়ে থাকলেও সরকারি ব্যাংকগুলো অনেক পিছিয়ে। বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায়, চলতি বছরের জানুয়ারি-জুন সময়ে ৩২৬ কোটি টাকা সিএসআর ব্যযের মধ্যে শিক্ষাখাত পেয়েছে প্রায় ৩৯ শতাংশ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ দুর্যোগ ব্যবস্থায় ২৯ শতাংশ বা ৯৪ কোটি টাকা ব্যয় করেছে ব্যাংকগুলো। এছাড়া স্বাস্থ্য খাতে ৩৬ কোটি টাকা দিয়েছে ব্যাংকগুলো; যা মোট সিএসআর ব্যয়ের ১১ শতাংশ। এছাড়া পরিবেশ, সংস্কৃতি, অবকাঠামো উন্নয়ন, আয় উৎসারীসহ বিভিন্ন খাতে সিএসআর থেকে ব্যয় করে ব্যাংকগুলো।

ওই প্রতিবেদনে দেখা যায়, জানুয়ারি-জুন ষান্মাষিকে রূপালী, বাংলাদেশ কৃষি, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন, বিডিবিএল, আইসিবি ইসলামী ও বিদেশি উরী ব্যাংক সিএসআর খাতে কোনো ব্যয় করেনি। এছাড়া জনতা, বেসিক, বাংলাদেশ কমার্স, মেঘনা, ব্যাংক আল ফালাহ, কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন, হাবিব এবং ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান সিএসআর খাতে অতি সামান্য ব্যয় করেছে।

আলোচ্য সময়ে সিএসআর খাতে সবচেয়ে বেশি ব্যয় করেছে ইসলামী ব্যাংক ৫৯ কোটি টাকা। এছাড়া পর্যায়ক্রমে ডাচবাংলা ৪৪ কোটি, এক্সিম ৩১ কোটি, প্রাইম ১৬ কোটি, ন্যাশনাল ব্যাংক ১৫ কোটি, ফার্স্ট সিকিউরিটি ১৪ কোটি, ইউসিবি ১১ কোটি, সাউথইস্ট ৯ কোটি, এবি সাড়ে ৮ কোটি ও স্ট্যান্ডার্ড ৮ কোটি টাকা সিএসআর খাতে ব্যয় করেছে।