ডোকলাম থেকে সেনা প্রত্যাহার করছে চীন-ভারত

নিউজ ডেস্ক: ডোকলাম থেকে সেনা প্রত্যাহার করছে চীন এবং ভারত। সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে সম্মত হয়েছে দু’দেশ। অবিলম্বে দু’দেশ ওই অঞ্চল থেকে সেনা সরিয়ে নেবে।

ভুটান সীমান্তে গত একমাস ধরে রাস্তা তৈরির কাজ করছে চীন। ওই রাস্তা নির্মাণের ফলে নিরাপত্তা শঙ্কায় গত জুনের শুরুতে চীনের ওই সড়ক নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয় ভারতীয় সেনাবাহিনী।

ভারত ওই অঞ্চলে সেনা মোতায়েন করার পরই দু’দেশের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এক দেশ অন্য দেশকে একের পর এক হুমকি দিয়েছে।

ভারতের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, দু’দেশই তাদের সেনা প্রত্যাহার করে নিচ্ছে। অপরদিকে, চীন বলছে সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে ভারত রাজি হওয়ায় তারা সন্তুষ্ট। তবে চীনের সেনাবাহিনী ওই অঞ্চলে টহল দেয়া বজায় রাখবে। ওই অঞ্চলকে বরাবরই নিজেদের বলে দাবি করে আসছে চীন।

প্রায় এক মাস ধরে সিকিম সীমান্ত বিরোধ নিয়ে ভারত-চীনের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা ছিল। সড়ক নির্মাণ কাজে বাধা দেয়ার জন্য ভারতে কড়া মাশুল গুণতে হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছিল চীন।

ব্রিকস সম্মেলনে যোগ দিতে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে চীনে সফর করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভারতীয় সূত্র বলছে, দু’পক্ষই তাদের সেনাদের ওই অঞ্চল থেকে সরিয়ে নিচ্ছে। তবে আজই সব সেনা সরিয়ে নেয়া হবে না।

দু’পক্ষেরই প্রায় ৩শ সেনা ডোকলামে মুখোমুখি অবস্থান করছিল। বার বারই কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমেই এই সমস্যার সমাধান করার কথা বলেছে ভারত।

ভুটান অধিকৃত ওই অঞ্চলকে চীন নিজেদের বলে দাবি করলেও ভারত বরাবরই ভুটানের পক্ষেই ছিল। দু’সপ্তাহ আগেও সহিংসতায় জড়িয়ে পড়েছিল ভারত এবং চীনের সেনারা। সেনারা একে অন্যকে পাথর ছুড়ে মেরেছে। দিল্লির দাবি, ভারতীয় সেনাদের ওপর অতর্কিত আক্রমণের কারণেই ওই সহিংসতার সূত্রপাত হয়।