সাবেক থাই প্রধানমন্ত্রী ইংলাক দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন

(FILES) This file photo taken on July 21, 2017 shows former Thai prime minister Yingluck Shinawatra greeting her supporters as she leaves the Supreme Court in Bangkok. Thai ex-prime minister Yingluck Shinawatra missed a verdict in a negligence trial on August 25, 2017 that could have seen her jailed, prompting the Supreme Court to issue an arrest warrant fearing she is a flight risk, a judge said. / AFP PHOTO / LILLIAN SUWANRUMPHALILLIAN SUWANRUMPHA/AFP/Getty Images

নিউজ ডেস্ক: থাইল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রা দেশ ছেড়ে দুবাইয়ে পালিয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। শনিবার তার দলের এক সিনিয়র নেতা বার্তা সংস্থা এএফপিকে একথা বলেন। আদালতের রায় এড়াতে তিনি দেশ থেকে এভাবে পালিয়ে যান।

ইংলাকের (৫০) বিরুদ্ধে দায়ের করা দায়িত্বে অবহেলা সংক্রান্ত মামলার রায়ের জন্য শুক্রবার সকালে উচ্চ আদালতে হাজির হওয়ার কথা ছিল তার। এ মামলায় তার ১০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছিল। কিন্তু তিনি আদালতে হাজির না হয়ে সিনাওয়াত্রা পরিবারের ১৬ বছরের রাজনৈতিক ইতিহাসের অবসান ঘটিয়ে দেশ ছেড়ে চলে যান।

পত্রপত্রিকার খবরে বলা হয়, তিনি স্থল সীমান্ত দিয়ে কম্বোডিয়া হয়ে সিঙ্গাপুর এবং সেখান থেকে দুবাই যান। সম্ভবত আদালতের রায়ের দিনদুই আগেই তিনি দেশ ছাড়েন। এদিকে রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে আদালত চত্বরে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল। উচ্চ আদালত আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর তার অনুপস্থিতিতেই এ মামলার রায় ঘোষণা করবে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে এক সামরিক অভ্যুত্থানে ইংলাক সরকারের পতন ঘটে। চালে ভর্তুকি কর্মসূচি বিষয়ে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে দায়ের করা এ মামলায় ইংলাক অভিযুক্ত হলে তার ১০ বছরের সাজা হতে পারে এবং তিনি আজীবনের জন্য রাজনীতিতে নিষিদ্ধ হতে পারেন। দীর্ঘ-বিলম্বিত এই রায়কে কেন্দ্র করে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এই দেশটিতে তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে এবং ভবিষ্যতে রাজনৈতিক-বিভক্ত দেশটিতে এর সুদূরপ্রসারী প্রভাব পড়তে পারে।