জীবন থাকতে বঙ্গবন্ধুর সংবিধানকে বানচাল করতে দেবনা: ড. কামাল

নিউজ ডেস্ক: আজ ২৪ শে আগস্ট বিকাল ৪ ঘটিকায় এ্যাডভোকেট শান্তি ঘোষ প্রণীত “JUDICIAL INTERPRETATION” গ্রন্হের মোড়ক উন্মেচনী অনুষ্ঠান শহিদ সফিউর রহমান মিলনায়ন সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবন, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সুপ্রীম কোর্টের প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা আইনজীবিদের উদ্দ্যেশে বলেন, দেশে ১২ থেকে ১৪ শত বিচারপতি আছেন। আপনারা কোন প্রকার পক্ষপাতিত্ব না করে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করুন। তিনি দেশের স্বার্থে সকল বিচারকদের একই প্লাটফর্মে আশারও অনুরোধ জানান।

তিনি আরো বলেন, দেশে অনেক নিরীহ জনগন আছে তারা গরু -ছাগল বিক্রি করে ন্যায় বিচার পাওয়ার আসায় আপনাদের কাছে আসে। তাই আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ, আপনারা তাদেরকে সঠিকভাবে ন্যায়বিচার প্রদান করুন।

তিনি আরো বলেন, “আমি বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচারের রায় প্রদান করায় নিজেকে ধন্য মনে করছি” বাকি ষড়যন্ত্রকারীদের আইনের আওতায় এনে তাদের বিচারেরও আশ্বাস দেন সিনহা।

অনুষ্ঠানে মূখ্য আলোচক বিশিষ্ট আইনজীবী ও সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধু স্বাক্ষরিত স্বাধীন বাংলার প্রথম সংবিধান বাংলাদেশ জাদুঘরে রক্ষিত আছে। তাই দেশের কিছু স্বার্থনেষি মহল এই সংবিধানকে বানচাল করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তাই তিনি হুশিয়ারী উচ্চারন করে বলেন, “জীবন থাকতে বঙ্গবন্ধু স্বাক্ষরিত সংবিধানকে বানচাল করতে দেবনা”।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, সুপ্রীম কোর্টের সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমীন চৌধুরী।