আশুরায় প্রতিমা বিসর্জন নয়: মমতা

নিউজ ডেস্ক:  ভারতের পশ্চিমবঙ্গে এবার পবিত্র মহররম মাসের মহিমান্বিত আশুরার দিন দেবী দুর্গার প্রতিমা বিসর্জন না করার নির্দেশ দিয়েছেন এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

এবার পবিত্র বিজয়া দশমী হবে ৩০ সেপ্টেম্বর এবং আশুরা পড়বে ১ অক্টোবর। বিজয়া দশমীর দিন থেকে পরের কয়েক দিন দেবী দুর্গার প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া হয়। মমতা বলেছেন, ৩০ সেপ্টেম্বর প্রতিমা বিসর্জন হবে কিন্তু ১ অক্টোবর বিরত থাকতে হবে। এরপর আবার ২, ৩ ও ৪ অক্টোবর বিসর্জন দেওয়া হবে।

দেবী দুর্গার প্রতিমা বিসর্জন ও আশুরার তাজিয়া মিছিল নিয়ে কোনো কোনো পক্ষ সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা সৃষ্টির চেষ্টা করতে পারে। রাজনৈতিক ফায়দা তোলার চেষ্টাও হতে পারে। ফলে যাতে কোনো রকম সমস্যা না হয় এবং শান্তিপূর্ণভাবে মুসলিম ও হিন্দুরা যেন তাদের পবিত্র ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করতে পারে, সেজন্য এই নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পশ্চিমবঙ্গের দুর্গা পূজা উদযাপন কমিটি ও আশুরা কমিটিগুলোর সঙ্গে বুধবার বৈঠক করেন মমতা ব্যানার্জি। তিনি উভয় ধর্মের নেতাদের পরিষ্কার ভাষায় বিষয়টি বুঝিয়ে বলেন।

মমতার এই নির্দেশের পরপরই এর বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া আসতে থাকে। কেউ কেউ তাকে সংখ্যালঘু তোষণকারী মুখ্যমন্ত্রীও বলেছেন।

বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের প্রধান দিলিপ ঘোষাল রূঢ় প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘পশ্চিমবঙ্গ কি তালেবানি শাসনের দিকে ধাবিত হচ্ছে? স্কুলে স্কুলে স্বরস্বতী পূজা বন্ধ করা হচ্ছে, দুর্গা পূজায় প্রতিমা বিসর্জন বারবার বাধাগ্রস্ত হচ্ছে, বাংলায় উর্দু-আরবি শব্দের (আব্বা, আম্মা, আসমানি) ব্যবহার বাড়ছে… এসব তো তারই প্রমাণ। এরপর দিদিমনিকে (মমতা ব্যানার্জি) আমাদের উর্দুতে বলতে হবে আপা।’

প্রথমে ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬টার পর প্রতিমা বিসর্জন না দেওয়ার নির্দেশ দিলেও পরে এক টুইটে তিনি বলেন, শুধু ১ অক্টোবর বিসর্জন বন্ধ থাকবে। বিষয়টি নিয়ে আগে ভাগেই রাজনীতি গরম হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ ও দিল্লিতে।