২১ আগস্টের কুশীলবদের ফাঁসির দাবি

নিউজ ডেস্ক: ২০০৪ সালে ২১ আগস্টে বঙ্গবন্ধু’র কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বিএনপি-জামায়াত যে বর্বরতা সৃষ্টি করেছে, আওয়ামী লীগের সমাবেশে সেই গ্রেনেড হামলার মুল কুশীলবদের ফাঁসির দাবি জানানো হয় সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদ আয়োজিত মানববন্ধন থেকে।

বুধবার (২৩ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদ আয়োজিত “২১ আগস্টের কুশীলবদের ফাঁসির দাবিতে” শীর্ষক মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করতে এসে বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম (বোয়াফ) সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময় এ-দাবি জানান।

কবীর চৌধুরী তন্ময় বলেন, জজ মিয়ার নাটক সাজানোর মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীরা পর্দার আড়ালেই থেকে গেল। বার বার দতন্তের নামে প্রকৃত অপরাধীদের আড়ার করার ষড়যন্ত্র করেছিল বিএনপি-জামাত। কারণ ২১ আগস্টের বর্বরতম কালো ইতিহাস রচনার মুল হোতা খালেদা জিয়ার কুপুত্র তারেক জিয়া।

তিঁনি আরও বলেন, সরকারের উচিত হত্যার রাজনীতি বন্ধ করার জন্যে এবং ভবিষ্যত রাজনীতিকে আরও সুন্দর ও মসৃন করার লক্ষে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার কুশীলবদের ফাঁসির মাধ্যমে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা এবং নতুন নেতৃত্বের মাঝে সন্ত্রাস-বোমাবাজদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্ত বার্তা প্রতিষ্ঠা করতে হবে সময়ে প্রয়োজনে।

সংগঠনের সভাপতি হাফেজ মাওঃ আব্দুস সাত্তার বলেন, খালেদা-তারেক জিয়া ও জামায়াত ইসলাম শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে ২১ আগস্টে গ্রেনেড হামলা করেছিল। সেদিনের ২৪ জন শহীদের হত্যাকারী হিসেবে তাঁদের চিহ্নিত ফাঁসি দিয়ে বাংলার ইতিহাসকে কলঙ্কমুক্ত করতে হবে।

সংগঠনের সভাপতি হাফেজ মাওঃ আব্দুস সাত্তারের সভাপতিতে এ সময় বক্তব্য রাখেন গোপালগঞ্জ সিটি যুবলীগের সহ-সভাপতি মাজহারুল ইসলাম জুয়েল, ইসলামী চিন্তাবিদ আবুল হাসান শেখ শরিয়তপুরী, সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা শওয়েব আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাফেজ আবদুল জলিল, বোয়াফ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রাকিব প্রমুখ।