গৌরীপুরে আন্তঃনগর ট্রেনে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ ॥ অবিস্ফোরিত বোমা উদ্ধার

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা ॥
ময়মনসিংহের গৌরীপুরের শ্যামগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে ঢাকাগামী আন্তঃনগর ট্রেন “মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেস” এ পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করেছে দুবৃর্ত্তরা। নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ট্রেনটি গত রোববার মধ্যরাতে শ্যামগঞ্জ স্টেশনে যাত্রাবিরতি করলে এই ঘটনা ঘটে। তবে হামলায় যাত্রী হতাহত কিংবা ট্রেনের বড় ধরণের কোনো ক্ষয়-ক্ষতি না হওয়ায় ট্রেনটি রাতেই ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এ ঘটনায় ময়মনসিংহ রেলওয়ে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। তবে সোমবার বিকাল পর্যন্ত কাউকে আটক কিংবা গ্রেফতার করতে পারেনি বলে জানিয়েছেন ময়মনসিংহ রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মান্নান ফরাজী।
পুলিশ ও রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী আন্তঃনগর মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনটি রোববার রাত ১টা ১০ মিনিটে শ্যামগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের প্লাটফরমে প্রবেশ করতেই ৭/৮ জন দুবৃর্ত্তের একটি দল ট্রেনের ইঞ্জিন ও বগি লক্ষ করে কয়েকটি পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে। বোমা বিস্ফোরণের শব্দে যাত্রীরা আর্ত-চিৎকার শুরু করলে দুবৃর্ত্তরা দ্রুত পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে স্থানীয় ও রেলওয়ের লোকজন ঘটনাস্থলে কয়েকটি বিস্ফোরিত বোমার কাঁচের টুকরো ও একটি অবিস্ফোরিত পেট্রোল বোমা পড়ে থাকতে দেখে। পরে পুলিশ এসে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অবিস্ফোরিত পেট্রোল বোমা উদ্ধার করে।
শ্যামগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার রফিক উদ্দিন বলেন, পেট্রোল বোমা নিক্ষেপের পর ট্রেনের চালক ট্রেনটি পিছনে নিয়ে আসতে বাধ্য হয়। কিন্তু বড় ধরণের কোন দুর্ঘটনা না হওয়ায় ট্রেনটি রাতেই ঢাকার উদ্দেশ্যে স্টেশন ত্যাগ করে।
গৌরীপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সীমা রানী সরকার বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অবিস্ফোরিত পেট্রোল বোমা উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। জড়িতদের ধরতে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে একুশে আগস্টকে কেন্দ্র করে সেই ২০০৪ সালের একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলাকারীরা নিজেরদের অস্তিত্ব জানান দিতেই ট্রেনে বোমা নিক্ষেপ করেছে।