মুক্তিযুদ্ধে শহীদ প্রথম মহিলা কবি মেহেরুন্নেসার জন্মবার্ষিকী

নিউজ ডেস্ক:  কবি মেহেরুন্নেসার কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা ছিলো না। তবুও সাহিত্য চর্চার প্রতি ছিলো তার প্রবল আগ্রহ। বাংলা একাডেমির প্রত্যেকটি অনুষ্ঠানে সে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করতো। তার জীবনযাপনে কোনো চাকচিক্য ছিলো না। তবে তার কবিতায় ছিলো শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ।

রবিবার বিকালে কবি মেহেরুন্নেসার ৮০ তম জন্মদিন উপলক্ষে জাতীয় গণ গ্রন্থাগারের সেমিনার কক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। সাংস্কৃতিক সংগঠন স্বপ্নকলা সাংস্কৃতিক ভুবন এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি কাজী রোজী, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন এন্ড ফিল্ম স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান জুনায়েদ আহমদ হালিম প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাজী রোজী বলেন, কবি মেহেরুন্নেসার কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা ছিলো না। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না থাকলেও সাহিত্য চর্চার প্রতি ছিলো তার প্রবল আগ্রহ। সেসময় বাংলা একাডেমির প্রত্যেকটি অনুষ্ঠানে সে অংশগ্রহণ করতো। মেহেরুনের ছিলো অসীম সাহস। কবিতায় ছিলো পাকিস্তানি শোষকদের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদের ছোঁয়া।

এর আগে মুক্তিযুদ্ধে শহীদ প্রথম মহিলা কবি মেহেরুন্নেসার ৮০ তম জন্মদিন উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে কবিতা আবৃত্তি হয়। এতে ঢাকার বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ পাবলিক কলেজ, ভিকারুন্নেসা নূন স্কুল এন্ড কলেজ, বাংলাদেশ নেভি কলেজ, গাছা উচ্চ বিদ্যালয়, হলি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। পরে কবির স্মরণে একটি প্রামান্যচিত্র ও তার পারিবারিক জীবনের দুর্লভচিত্র প্রদর্শন করা হয়। শেষে আবৃত্তি প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন কবি কাজী রোজী।