জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে রাজপথে থাকবে ছাত্রলীগ: সোহাগ

নিউজ ডেস্ক: ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেছেন, সাধারণ মানুষ দ্বারা প্রত্যাখিত হয়ে জামাত-শিবির এখন জঙ্গিবাদী কার্যক্রমে অংশ নিচ্ছে। সাধারণ মানুষকে হত্যা করতে তারা আত্মঘাতি হচ্ছে। দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রের নীলনকশা নিয়ে সামনে এগুচ্ছে। তাই এসব জঙ্গীদের প্রতিহত করতে প্রগ্রতির ধারক বাহক বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে রাজপথে থাকতে হবে। প্রয়োজনে ছাত্রলীগ রক্ত দিবে। তবুও তাদের আর বাড়তে দেওয়া যাবে না।

বৃস্পতিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ছাত্রলীগের ‘কালাপতাকা মিছিল’ পরবর্তী সমাবেশে এসব কথা বলেন তিনি। ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের দিন জঙ্গি হামলার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে এই কালোপতাকা মিছিল ও সমাবেশের করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

সমাবেশের আগে মিছিলটি মধুর ক্যান্টিন থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে গিয়ে শেষ হয়।

সমাবেশে জাকির হোসাইন বলেন, ‘আরও একটি ১৫ আগস্ট সৃষ্টির পায়তার করছে ঐ বিএনপি-জামাত। এবারের ১৫ আগস্ট সারা দেশের মানুষ জানে একজন শিবির কর্মী ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে শোকর মিছিলে হামলা চালাতে চেয়েছিল। কিন্তু না পেরে আত্মঘাতি হয়েছে। অথচ ওসব শিবির কর্মীর অভিভাবক হচ্ছে জামায়াত।আর জামায়াতকে সঙ্গে নিয়ে রাজনীতি করছে ঐ বিএনপি।’

তিনি ছাত্রলীগ কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এখন আর ঘরে বসে থাকার সময় নেই। তারা আমাদের আবেগের জায়গায় আবার মরণ আঘাত হানতে চায়। তাই প্রয়োজনে নিজের জীবন দিয়ে যাবো তবু যেনো আরও একটি ১৫ আগস্ট সৃষ্টি না হতে পারে সেদিকে সর্তক থাকতে হবে।

এসময় তিনি সাধ্যমত সবাইকে বন্যার্ত দু;স্থ মানুষদের পাশে দাঁড়াতে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা আহ্বান জানান।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিভিন্ন ইউনিটসহ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।