বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতির অভিযোগে ঠিকাদার গ্রেফতার

নিউজ ডেস্ক : সুনামগঞ্জের হাওড়ে বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতির অভিযোগে দায়ের করা মামলার আসামি ঠিকাদার খায়রুল হুদা চপলকে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) মঙ্গলবার রাত পৌণে ১২টার দিকে সিঙ্গাপুর যাওয়ার পথে গ্রেফতার করেছে।

মঙ্গলবার রাতে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। খায়রুল হুদা চপল ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নূর ট্রেডিংয়ের স্বত্ত্বাধিকারী।

এ নিয়ে দুদকের বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতি মামলায় এ পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেফতার করা হল।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য মঙ্গলবার রাতে জানান, বিদেশ (সিঙ্গাপুর) যাওয়ার চেষ্টাকালে রাত পৌনে ১২টার দিকে বিমান বন্দরের আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সাহায্যে খায়রুল হুদা চপলকে গ্রেফতার করা হয়।

এপিবিএন পুলিশই ঠিকাদার খায়রুল হুদা চপলকে গ্রেফতারের পর দুদকে সোপর্দ করে।

উল্লেখ্য : হাওড়ের বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতি, অনিয়ম ও কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগে গত ২ জুলাই সুনামগঞ্জ সদর থানায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও ঠিকাদারসহ মোট ৬১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদক প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ফারুক আহমেদ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বরখাস্তকৃত সুনামগঞ্জের নির্বাহী কর্মকর্তা আফসার উদ্দিনকে।

এ ছাড়া বরখাস্তকৃত সিলেটের প্রধান প্রকৌশলী আবদুল হাই, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নুরুল ইসলামসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের ১৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন আসামির তালিকায়।

বাকী ৪৬জন আসামির মধ্যে রয়েছেন ঠিকাদার, প্রকল্প বাস্তবায়ন (পিআইসি) কর্মকর্তারা।

আসামিদের দ্রুত গ্রেফতারে নেমেছে পুলিশ।

এদিকে আসামিরা যাতে পালিয়ে যেতে না পারে সে কারণে পূর্ণাঙ্গ নামের তালিকাও এই মুহূর্তে প্রকাশ করছে না পুলিশ।