ডিভাইসে খুঁজে পাওয়া যাবে চোরাই গাড়ি

নিউজ ডেস্ক: ফাইন্ডার ট্র্যাকিং সার্ভিস। যার মাধ্যমে ঘরে বসে আপনার গাড়ির অবস্থান, গতি, অতিক্রান্ত দূরত্বসহ গাড়ি সম্পর্কে আরও নানা ধরনের তথ্য জানতে পারবেন। গাড়ির ড্রাইভার অাপনার সঙ্গে লোকেশন সম্পর্কে কোনো মিথ্যা তথ্য দিলে ধরা পড়বে। এমনকি চুরি হওয়া গাড়িও উদ্ধার করতে পারবেন।

ফাইন্ডার ট্র্যাকিং সার্ভিস কর্তৃপক্ষ এমনটাই দাবি করেছে। তারা জানিয়েছে, চোরাই গাড়ি উদ্ধার ছাড়াও এ ট্র্যাকিং সার্ভিস গাড়ির নিরাপত্তা ও সঠিক ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করে। এ সার্ভিসের মাধ্যমে ব্যবহারকারী খুব সহজেই ড্রাইভারের সারাদিনের কার্যক্রম, সর্বোচ্চ অতিক্রান্ত দূরত্ব দেখতে পারবেন। এমনকি ইচ্ছা হলে কল গাড়ির ভেতরের কথাবার্তাও শুনতে পারবেন। এছাড়া এতে আছে জিও-ফেন্স সুবিধা, যার মাধ্যমে নির্দিষ্ট এলাকায় (যা ব্যবহারকারী নিজেই এঁকে দিতে পারেন) গাড়ি ঢুকলে বা বের হলে সঙ্গে সঙ্গে নোটিফিকেশন চলে যাবে ব্যবহারকারীর কাছে।

ব্যবহারকারীরা ফাইন্ডার ওয়েবসাইট (www.finder-lbs.com) অথবা মোবাইল অ্যাপস থেকে তার গাড়ির অবস্থান, গতি, অতিক্রান্ত দূরত্বসহ আরও নানা ধরনের রিপোর্ট উপভোগ করেন। শুধু তাই নয়, ২৪/৭ কাস্টমার কেয়ারে ফোন দিয়ে অথবা পুশপুল এসএমএসের মাধ্যমেও পাওয়া যায় এসব সেবা। যেকোনো ধরনের গাড়ির পাশাপাশি মোটরসাইকেল, মাইক্রোবাস, বাস, ট্রাক, সিএনজি অটোরিকশা এমনকি নৌযানেও ব্যবহার করা যায় এ ডিভাইস।

এ সেবা উপভোগের জন্য একটি ট্র্যাকিং ডিভাইস ইন্সট্রল করতে হয়। ডিভাইসটিতে একটি মোবাইল সিম থাকে, জিপিএস প্রযুক্তির মাধ্যমে যানবাহনের তাৎক্ষণিক অবস্থান আপডেট করতে থাকে ফাইন্ডার সার্ভারে।

ফাইন্ডার অারও জানায়, দেশে এই সার্ভিস চালু আছে ২০০৯ সাল থেকে। আফটার সেলস সার্ভিস এই সেবার অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। আর এই সেবা নিশ্চিত করতে ফাইন্ডারের ঢাকার পাশাপাশি চট্টগ্রাম ও যশোরে রয়েছে নিজস্ব অফিস। এছাড়া মোবাইল টেকনেশিয়ান টিম আছে সারাদেশে সার্ভিস দেয়ার জন্য।

ফাইন্ডার ট্র্যাকিং সার্ভিস কর্তৃপক্ষের দাবি, এ সেবা নিয়ে গত দুই মাসে প্রায় আটটি গাড়ি, মোটরবাইকসহ মাইক্রোবাস উদ্ধার করা হয়েছে, যার মধ্যে দু’ক্ষেত্রে চোরও ধরা পড়েছে।