২০৫০ সাল নাগাদ শীর্ষ অর্থনীতির দেশ হবে চীন

নিউজ ডেস্ক: ২০৫০ সাল নাগাদ বিশ্বের শীর্ষ অর্থনীতির দেশ হবে চীন। এরপরে দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে থাকবে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র। অর্থনৈতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রাইস ওয়াটার কুপার্সের গবেষণা প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এমনই তথ্য। প্রতিবেদন বলছে, শীর্ষ ৩২ অর্থনীতির দেশের এ তালিকায় বাংলাদেশ থাকবে ২৩ তম অবস্থানে। এ দেশের মোট অর্থনীতির আকার থাকবে ৩ ট্রিলিয়ন ডলারের ওপরে।

২০৫০ সাল নাগাদ বিশ্ব অর্থনীতির এক পাওয়ার হাউজ যুক্তরাষ্ট্রকে পেছনে ফেলে শীর্ষ অবস্থান নেবে দ্বিতীয় পাওয়ার হাউজ চীন। শীর্ষ অর্থনীতির দেশগুলোর তালিকায় তৃতীয় অবস্থান নেবে ভারত। আগামী ৩৩ বছরে ঘটবে বিশ্ব অর্থনীতিতে এ পট পরিবর্তন। পিডব্লিউসি’র ‘দ্যা লং ভিউ: ২০৫০ সাল নাগাদ কিভাবে পরিবর্তন হবে বিশ্ব অর্থনীতির’ শীর্ষক রিপোর্টে উঠে এসেছে এসব তথ্য। ৩২ টি দেশের জিডিপি’র ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে এ গবেষণা প্রতিবেদন।

প্রতিবেদন বলছে, ২০৫০ সাল নাগাদ চীনের অর্থনীতির আকার দাঁড়াবে ৫৮ ট্রিলিয়ন ডলার, ভারতের দাঁড়াবে ৪৪ ট্রিলিয়ন ডলার, যুক্তরাষ্ট্রের ৩৪ এবং ইন্দোনেশিয়ার অর্থনীতির আকার পৌঁছাবে ১০ ট্রিলিয়ন ডলার। নিষেধাজ্ঞা জর্জরিত রাশিয়া চলে আসবে ষষ্ঠ অবস্থানে, ইউরোজোনের পাওয়ার হাউজ জার্মানি চলে যাবে নবম অবস্থানে। জ্বালানি সমৃদ্ধ সৌদি আরব থাকবে ১৩তম অবস্থানে। ৩২ তম অবস্থানে থাকবে নেদারল্যান্ডস। এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে অষ্টম অবস্থানে থাকবে বাংলাদেশ।

প্রতিবেদন বলছে, বর্তমানে বিশ্ব অর্থনীতির পাওয়ার হাউজ হিসেবে পরিচিত যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও জার্মানিকে পেছনে ফেলে এগিয়ে যাবে ইন্দোনেশিয়া, এশিয়ার মতো উন্নয়নশীল দেশ।