কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী কেনিয়াত্তা

নিউজ ডেস্ক: কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন উহুরু কেনিয়াত্তা। তবে তার প্রতিদ্বন্দ্বী রাইলা ওদিঙ্গা নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের আইটি সিস্টেম হ্যাক হওয়ার অভিযোগে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণার আগেই গত বুধবার তা না মানার ঘোষণা দেন।

দেশটির নির্বাচন কমিশন সরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করে শুক্রবার। এতে কেনিয়াত্তা পেয়েছেন ৫৪ দশমিক ২৭ শতাংশ এবং রাইলা ওদিঙ্গা ৪৪ দশমিক ৭৪ শতাংশ ভোট পেয়েছেন।

কেনিয়াত্তা ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পাওয়ায় প্রেসিডেন্ট হওয়ার পথে তার আর কোনো বাধা থাকল না। কারণ দেশটিতে কেউ প্রেসিডেন্ট হতে হলে তাকে ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পেয়ে নির্বাচিত হতে হয়।

নির্বাচনে জয়লাভের পর অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে কেনিয়াত্তা বলেন, কয়েকদিনের অপেক্ষাকে দীর্ঘসময় বলে মনে হয়েছে। কিন্তু চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণার অপেক্ষায় ছিলাম আমরা। শেষ পর্যন্ত এখন তা ঘোষণা করা হল।

তিনি আরও বলেন, যে কাজগুলো আমরা শুরু করেছিলাম তা অব্যাহত থাকবে। কেনিয়ার নাগরিকরা আমাকে সফলভাবেই দেখতে চায়।

৭৮ শতাংশ নিবন্ধিত ভোটার অর্থাৎ ১৫ মিলিয়নের বেশি লোক নির্বাচনে ভোট দিয়েছে। নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান ওয়াফুলা চেবুকাতি নির্বাচনকে স্বচ্ছ এবং বিশ্বাসযোগ্য বলে দাবি করেছেন। কেনিয়াত্তার সমর্থকরাও বিজয়োল্লাস করেছেন।

 

তবে ফলাফল ঘোষণার পরপরই তা বর্জন করেছেন বিরোধী দলের সদস্যরা। কেনিয়ার সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং ন্যাশনাল সুপার অ্যালিয়েন্স (এনএএসএ) এর জ্যেষ্ঠ কর্তাব্যক্তি মুসালিয়া মুদাভাদি বলেন, আমাদের অভিযোগ (নির্বাচনে হ্যাকিংয়ের বিষয়টি) সমাধান করা হয়নি। আমাদের অভিযোগ গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা না করেই ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। সেকারণে আমরা সেখানে যাব না।

আরেকজন জ্যেষ্ঠ কর্তাব্যক্তি জেমস ওরেঞ্জো বলেন, নির্বাচন প্রক্রিয়াটা প্রহসন এবং সংকটে ভরপুর। নির্বাচন কমিশন এরকম পরিস্থিতিতে কোনোভাবেই বিজয়ী এবং পরাজিতের নাম ঘোষণা দিতে পারে না বলেও মনে করেন তিনি।

রাইলার নির্বাচন বয়কটের ঘোষণার পর থেকেই তার সমর্থকরা বিক্ষোভ করে আসছেন। সহিংসতায় এখন পর্যন্ত ছয়জন নিহত হয়েছে।