দেহরক্ষীর প্রেমে মজেছিলেন প্রিন্সেস ডায়ানা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রিন্সেস ডায়ানা ও তার এক সময়ের দেহরক্ষী ব্যারি ম্যানাকেকে নিয়ে গুঞ্জন রয়েছে তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক ছিল। মূলত প্রিন্স চার্লসের ঘনিষ্ট মহল থেকেই এ ধরনের অভিযোগ ছড়িয়েছে।

তবে চ্যানেল ফোরে প্রকাশিতব্য একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ম্যানাকের সঙ্গে গভীর প্রেমের সম্পর্ক ডায়ানা স্বীকার করলেও শারীরিক সম্পর্কের কথা অস্বীকার করেছেন।

ব্যক্তি সম্পর্কের জটিল হিসাব-নিকাশও উঠে আসে তার একটি কথায়। ডায়ানা বলছিলেন, আমি আগুন নিয়ে খেলছি। সেই আগুনে নিজের পুড়ে যাওয়ার কথাও বলছিলেন তিনি।

এ কথা সত্য একটা সময় ডায়ানার সঙ্গে প্রিন্স চার্লসের সম্পর্কটা একেবারে তলানিতে এসে ঠেকেছিল। একদিনে তিনি জড়িয়ে পড়েন মানাকের সঙ্গে একটা সম্পর্কে। অন্যদিকে প্রিন্স চার্লসও একটু একটু করে ফিরতে শুরু করেন তার সাবেক প্রেমিকার কাছে।

এসব নিয়ে জটিলতার মধ্যে সবকিছু ছেড়ে মানাকের সঙ্গে চলে যেতেও রাজি ছিলেন ডায়না।

প্রিন্স হ্যারির জন্মের একবছর পর ১৯৮৫ সালের দিকে মানাকের সঙ্গে ঘনিষ্টতা বাড়তে থাকে ডায়নার।

পুরো ভিডিওতে যদিও ডায়না কোথাও মানাকের নাম নেননি এটা স্পষ্ট যে তিনি আসলে তার কথাই বলছিলেন।

১৯৮৭ সালে চাকরি হারানোর পর এক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান ম্যানাকে।

ম্যানাকের মৃত্যুকে হত্যাকাণ্ড হিসেবেও উল্লেখ করেন ডায়ানা। একইসঙ্গে ঘটনাটিকে নিজের জীবনের সবচেয়ে বড় ধাক্কা বলেও অভিহিত করেন তিনি।

দু’জনের সম্পর্কের কথা বলতে গিয়ে একপর্যায়ে ডায়ানা বলেন, আমি তার সামনে ছোট্ট একটা মেয়ের মতো ছিলাম, সব সময় যে একটু প্রশংসা পাওয়ার আশায় অস্থির থাকত।

১৯৯৩ বা ১৯৯৪ সালের দিকে একজন স্পিচথেরাপিস্টের সঙ্গে ডায়নার কথোপকথনই মূলত উঠে এসেছে ভিডিওটিতে। এক্সপ্রেস।