জাপানি বিনিয়োগ টানার উদ্যোগ সিঙ্গাপুরে বৈঠক

নিউজ ডেস্ক: জাপানি কোম্পানিগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের যোগাযোগ স্থাপন করিয়ে দিতে সিঙ্গাপুরে একটি ‘বিজনেস টু বিজনেস’ সম্মেলনের আয়োজন করছে দেশটির বৈদেশিক বাণিজ্যবিষয়ক সংস্থা জাপান এক্সটার্নাল ট্রেড অর্গানাইজেশন (জেট্রো)। এ বৈঠকে জাপানের পক্ষ থেকে দেশটির ৫৪টি কোম্পানি অংশ নেবে। অন্যদিকে বাংলাদেশ থেকে কয়েকটি সরকারি সংস্থা ও ব্যবসায়ীরা অংশ নেবেন।

সম্মেলনটিকে বাংলাদেশে জাপানি বিনিয়োগ টানার ক্ষেত্রে একটি উল্লেখযোগ্য উদ্যোগ হিসেবে দেখছেন ব্যবসায়ীরা। জেট্রোর আয়োজন এবং জাপানি বড় কিছু প্রতিষ্ঠান এতে অংশ নিচ্ছে বলে বাংলাদেশ সম্পর্কে জাপানের আগ্রহ বেড়েছে বলেই মনে করছেন তাঁরা।

এ সম্মেলনের সহ-আয়োজক বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)। আগামী শুক্রবার সিঙ্গাপুরে এক দিনের এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে সিঙ্গাপুরের বিনিয়োগকারী ও বিনিয়োগ উন্নয়ন সংস্থার সঙ্গে বৈঠক করবে বাংলাদেশের প্রতিনিধিদল। সেখানে বিনিয়োগের পাশাপাশি এক দরজায় সব সেবা বা ওয়ান স্টপ সার্ভিস নিশ্চিত করা এবং দক্ষতা উন্নয়নে সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হবে।

এই সফরে নেতৃত্ব দেবেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি-বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ। এতে দেশের সংশ্লিষ্ট সরকারি সংস্থা, ব্যবসায়ী সংগঠন ও ৪৩টি ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। জাপানি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সিঙ্গাপুরে বৈঠকের কারণ সম্পর্কে বিডার পরিচালক তৌহিদুর রহমান খান বলেন, সিঙ্গাপুরে জাপানের অনেক প্রতিষ্ঠানের মূল কার্যালয়। বিনিয়োগ সিদ্ধান্ত হয় সেখান থেকেই। এ কারণে এ বৈঠক সিঙ্গাপুরে হচ্ছে।

জাপানি কোম্পানিগুলোর মধ্যে সম্মেলনে জ্বালানি, আর্থিক ও ব্যাংকিং, তথ্যপ্রযুক্তি, প্রকৌশল, ইলেকট্রনিকস, ভোগ্যপণ্য, ইস্পাত, রাসায়নিকসহ ১১টি খাতের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। এর মধ্যে রয়েছে তোশিবা করপোরেশন, মিতসুবিশি করপোরেশন, সুমিতমো করপোরেশন, মারুবিনি করপোরেশন, শার্প-রক্সি সেলস, সুমিতমো মিৎসুই ব্যাংকিং করপোরেশন, সানটেন ফার্মাসিউটিক্যালস, টোকিও গ্যাস ও নিপ্পন স্টিল অ্যান্ড সুমিকিন বুশান করপোরেশন।

জানা গেছে, সম্মেলনে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, ওষুধ, কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াকরণ, তথ্যপ্রযুক্তিসহ সাতটি খাতের ওপর ব্যবসায়ীরা বিনিয়োগ সম্ভাবনার চিত্র তুলে ধরবেন।

ঢাকা চেম্বারের পক্ষ থেকে সম্মেলনটিতে অংশ নেবেন সংগঠনটির সভাপতি আবুল কাসেম খান। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সম্পর্কে জাপানিদের আত্মবিশ্বাসের স্তর অনেক নিচে। এ সম্মেলনে আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর চেষ্টা করা হবে। জাপানি বিনিয়োগ নিয়ে সিঙ্গাপুরের ডিবিএস ব্যাংকের ২০১৬ সালের একটি জরিপ তুলে ধরে তিনি বলেন, জাপান পাঁচ বছর ধরে থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইনের মতো আসিয়ানভুক্ত দেশগুলোতে বছরে ২০ বিলিয়ন (২ হাজার কোটি) ডলার বিনিয়োগ করছে। এখন জাপানি কোম্পানিগুলো বলছে, ওই সব দেশে শ্রমের মজুরি অনেক বেড়ে গেছে। বাংলাদেশ এ সুযোগ নিতে পারে বলে মনে করেন ঢাকা চেম্বারের সভাপতি।