৫৭ ধারার ভয়ে মিডিয়া সংকুচিত হয়ে গেছে: বিএনপি

নিউজ ডেস্ক:  বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে। তবে শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে নয়।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে আয়োজিত ‘জাতীয় নির্বাচনকালীন সময়ে নিরপেক্ষ সহায়ক সরকার ছাড়া সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

জাতীয়তাবাদী সাইবার দলের ৫ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত এই সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন ও আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রবি তালুকদার প্রমুখ। সভায় সভাপতিত্ব করেন সাইবার দলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কামরুল ইসলাম।

গয়েশ্বর আরও বলেন, যদি সরকার আজ ঘোষণা দেয় যে, আগামী নির্বাচন নির্দলীয় সহায়ক সরকারের অধীনে হবে, তাহলে ৩০০ আসনের মধ্যে একটি টিকিট কেনারও প্রার্থী খুঁজে পাবে না আওয়ামী লীগ।

দেশের গণমাধ্যম এখনও গণবান্ধব হতে পারেনি দাবি করে বিএনপির এই নেতা বলেন, মিডিয়া ব্যবসায়ীদের হাতে। এখন ব্যবসায়ীদের সরকার লাগে, সরকারেরও ব্যবসায়ী লাগে। মিডিয়া স্বাধীন হওয়ার ক্ষেত্রে এটাই সবচেয়ে বড় বাধা। মিডিয়া মালিকদের নিরাপত্তার স্বার্থে সাংবাদিকরা কাজ করতে পারে না। এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হলে সাংবাদিকদের সাহসিকতার সঙ্গে কাজ করতে হবে।

মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, ৫৭ ধারার ভয়ে মিডিয়া সংকুচিত হয়ে গেছে। সাংবাদিকরা নির্ভয়ে লিখতে পারছেন না। মিডিয়ার মালিকরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।