জাতীয় নির্বাচনে জাপা ৩০০ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রস্তুত

নিউজ ডেস্ক :দেশের ৩০০ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার প্রস্তুতি গ্রহণ করছে বিরোধী দল জাতীয় পার্টি। ইতোমধ্যে সম্ভাব্য প্রার্থীর তালিকাও ঠিক করেছে দলটি। আসন প্রতি তিন প্রার্থী থাকার কথা জানানো হয়েছে জাপার পক্ষ থেকে।

শনিবার সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এরশাদের প্রেস সচিব শুনীল শুভ রায় স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী তালিকা নিয়ে মিডিয়ায় মনগড়া, কাল্পনিক ও বিভ্রান্তিকর খবর প্রকাশিত হবার প্রেক্ষিতে পার্টির পক্ষ থেকে সুস্পষ্টভাবে জানিয়ে দেয়া হচ্ছে যে, ওই ধরনের কোন তালিকা আদৌ প্রণয়ন করা হয়নি। আর জাতীয় পার্টির প্রার্থী তালিকা অন্য কোন দলের কাছে পৌঁছে দেয়ার তো প্রশ্নই উঠে না।

জাতীয় পার্টির মধ্যে একটা বিভ্রান্তি ও ধূম্রজাল সৃষ্টির অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়ে ওই ধরনের বানোয়াট খবর প্রচার করা হয়েছে দাবি করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ওই সব মিথ্যা খবরে বিভ্রান্ত না হবার জন্য পার্টির সর্বস্তরের নেতাকর্মী-সমর্থকের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

পার্টির পক্ষ থেকে সুস্পষ্টভাবে জানানো যাচ্ছে, দলের চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ঘোষণা অনুযায়ী জাতীয় পার্টি ৩০০ আসনেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার প্রস্তুতি গ্রহণ করছে। সেই লক্ষ্যে দল প্রধানের নির্দেশ অনুসারে যারা নির্বাচন করতে আগ্রহী সেসব প্রার্থীর নাম ও জীবন বৃত্তান্ত জমা নেয়া হয়েছে।

তাতে দেখা গেছে- প্রতি আসনে জাতীয় পার্টির গড়ে ৩ প্রার্থী নির্বাচন করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। প্রত্যেক জেলা কমিটির মাধ্যমে তাদের নাম কেন্দ্রে জমা হয়েছে। নির্বাচনের সিডিউল ঘোষণার পর জাতীয় পার্টির প্রত্যেক আগ্রহী প্রার্থীকে নির্দিষ্ট ফর্মে আবেদন করতে হবে। জাতীয় পার্টির পার্লামেন্টারি বোর্ডে প্রার্থীর সাক্ষাতকার গ্রহণের মধ্য দিয়ে চূড়ান্ত তালিকা প্রণয়ন করা হবে।

এর বাইরে আর কোন প্রক্রিয়ায় পার্টির প্রার্থী তালিকা প্রণয়নের সুযোগ নেই। সুতরাং, এই নিয়ে আর কোন বিভ্রান্তির অবকাশ থাকবে না বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

জাতীয় তরুণ পার্টি নামে জাপার অঙ্গ বা সহযোগী সংগঠন নেই।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সুস্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন, ‘জাতীয় তরুণ পার্টি’ নামে জাতীয় পার্টির কোন অঙ্গ বা সহযোগী সংগঠন নেই।

শনিবার এক সাংগঠনিক নির্দেশে পার্টি চেয়ারম্যান বলেছেন, বিভিন্ন তথ্যসূত্রে আমি অবগত হয়েছি যে, ‘জাতীয় তরুণ পার্টি’ নামে জাতীয় পার্টির একটি ভুয়া অঙ্গ সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঘটিয়ে পার্টি এবং পার্টির গঠনতান্ত্রিক অঙ্গ সংগঠনের মধ্যে বিভ্রান্ত সৃষ্টি করা হচ্ছে। আমি সংশ্লিষ্ট সকল মহলের অবগতির জন্য সুস্পষ্টভাবে জানিয়ে দিতে চাই, ‘জাতীয় তরুণ পার্টি’ নামে জাতীয় পার্টির কোন অঙ্গসংগঠন নেই। যদি কেউ এই সংগঠনের নাম-পরিচয় দিয়ে কোথাও কোনভাবে বিভ্রান্তি সৃষ্টি বা সুবিধা আদায়ের চেষ্টা করে তাহলে তা আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে অবহিত করে আইনের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সকল মহলকে জানিয়ে দেয়া হলো।

জাতীয় পার্টি বা পার্টির অঙ্গ সংগঠনের কেউ যদি ‘জাতীয় তরুণ পার্টি’ নামের ভুয়া সংগঠনের সঙ্গে জড়িত থাকে বা এই নামে তৎপরতা চালায় তাহলে তাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হবে।