দেশের বাইরে প্রথম সামরিক ঘাঁটি গড়তে যাচ্ছে চীন

নিউজ ডেস্ক: আফ্রিকায় সামরিক ঘাঁটি গড়তে সৈন্য নিয়ে জিবুতির পথে পাল তুলেছে চীনা জাহাজ। আর এর মাধ্যমেই প্রথমবারের মতো দেশের সীমানার বাইরের ঘাঁটি গাড়ছে বিশ্বের সবচে জনবহুল রাষ্ট্রটি।

চীনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়া গত মঙ্গলবার (১১ জুলাই) জানায়, দেশের বাইরে প্রথম সামরিক ঘাঁটি স্থাপন করতে আফ্রিকার দেশ জিবুতির পথে রওনা হয়েছে চীনের সামরিক জাহাজের বহর। বন্ধুত্বপূর্ণ আলোচনা এবং দুই দেশের জনগণের আগ্রহের মধ্য দিয়েই এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

চীনের প্রথম বৈদেশিক নৌঘাঁটি স্থাপনে জিবুতিকে বেছে নেওয়ার কারণ হলো দেশটির কৌশলগত অবস্থান। এটি ভারত মহাসাগরের উত্তর পশ্চিম তীরে অবস্থান করছে বলে ভারতের যথেষ্ট মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে এই দুশ্চিন্তা থেকে বাদ যাবে না বাংলাদেশ, মিয়ানমার এবং শ্রীলংকাও।

গত বছর থেকেই চীন জিবুতিতে নৌঘাঁটি গড়ে তোলার নির্মাণ কাজ শুরু করেছিল। এই ঘাঁটি থেকে চীন ইয়েমেন ও সোমালিয়ার তীরে শান্তিরক্ষা ও মানবিক সাহায্যের জন্য তাদের নৌবাহিনীকে ব্যবহার করবে।

আজ বুধবার দেশটির সরকার-নিয়ন্ত্রিত পত্রিকা গ্লোবাল টাইমসের সম্পাদকীয়তে বলা হয়, ‘চীনের নিরাপত্তা রক্ষার উদ্দেশ্যেই দেশের সামরিক উন্নয়ন অপরিহার্য। এটা বিশ্বকে নিয়ন্ত্রণ করার উদ্দেশ্যে নয়।’ লোহিত সাগরের দক্ষিণ প্রবেশপথে সুয়েজখালে অবস্থিত জিবুতিতে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও ফ্রান্সের সামরিক ঘাঁটি আগে থেকেই রয়েছে।

এদিকে চীন সরকার দেশটির নৌবাহিনীর সদস্য বাড়ানোর ঘোষণাও দিয়েছে গত মঙ্গলবার।