সংস্কৃতিমন্ত্রীর সাথে মিশরের সাবেক ও জনসংখ্যামন্ত্রীর সাক্ষাৎ

নিউজ ডেস্ক: সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের সাথে আজ সচিবালয়স্থ তাঁর অফিস কক্ষে বাংলাদেশ সফররত মিশরের সাবেক পরিবার ও জনসংখ্যামন্ত্রী গড়ঁংযরৎধ কযধঃঃধন সাক্ষাৎ করেন। এসময় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ ইব্রাহীম হোসেন খান, মিশর দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স ডধষরফ ঝযধসংবষফরহ এবং সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংস্কৃতি উপদেষ্টা সুরাইয়া আখতার জাহান উপস্থিত ছিলেন।

মিশরের মনোনীত প্রতিনিধি হিসেবে গড়ঁংযরৎধ কযধঃঃধন ২০১৭-২০২১ মেয়াদে টঘঊঝঈঙ এর মহাপরিচালক হিসেবে নির্বাচনের জন্য প্রতিদ্ব›িদ্বতা করবেন। এ নির্বাচনের প্রচার কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এবং বাংলাদেশের সমর্থন আদায়ের লক্ষ্যে তিনি বর্তমানে বাংলাদেশ সফর করছেন। এ সফরে সংস্কৃতিমন্ত্রী ছাড়াও তিনি শিক্ষামন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করেছেন।

মিশরের সাবেক এ মন্ত্রীকে বাংলাদেশে স্বাগত জানিয়ে সংস্কৃতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ও মিশর মুসলিম ভ্রাতৃপ্রতিম দেশ। দীর্ঘদিন ধরে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ইস্যুসহ দ্বিপাক্ষিক ইস্যুগুলোতে দু’দেশ পরস্পরের সাথে আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সহযোগিতার এ ক্ষেত্র আগামীতে আরো বিস্তৃত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

ইউনেস্কোর মহাপরিচালকের পদ অত্যন্ত মর্যাদাসম্পন্ন উল্লেখ করে সংস্কৃতিমন্ত্রী মিশরের সাবেক এ মন্ত্রীকে প্রতিদ্ব›িদ্বতার জন্য শুভকামনা জানান।

আসাদুজ্জামান নূর বলেন, বাংলাদেশের সাথে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সাংস্কৃতিক চুক্তি ও সাংস্কৃতিক বিনিময় কার্যক্রম চালু রয়েছে। মিশরের সাথেও সাংস্কৃতিক চুক্তি রয়েছে। এ চুক্তির আওতায় পূর্বে দু’দেশের মধ্যে সাংস্কৃতিক বিনিময় কার্যক্রম চলমান ছিল। কিন্তু মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় বর্তমানে তা চালু নেই। নতুন মেয়াদে দেশটির সাথে সাংস্কৃতিক বিনিময় কার্যক্রম চালুর ব্যাপারে ইতোমধ্যে একটি প্রস্তাব বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। দু’দেশের মধ্যে এ বিনিময় কার্যক্রম চালু হলে তা আমাদের ভ্রাতৃত্বের বন্ধনকে আরো দৃঢ় করবে বলে মন্তব্য করে তিনি মিশরের সাবেক মন্ত্রীকে এ ব্যাপারে সহযোগিতার আহŸান জানান।