অতীতের সব রেকর্ড ভাঙল ডিএসই

নিউজ ডেস্ক: অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে নতুন উচ্চতায় পৌঁছে গেছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স। সোমবার এ সূচকটি আগের দিনের তুলনায় ৫২ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৮২৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

প্রধান মূল্য সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে অপর দুটি সূচকও। ডিএসই-৩০ সূচক ১৩ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ১২২ পয়েন্টে এবং ডিএসই শরিহ্ সূচক ৫ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩১৯ পয়েন্টে। এ ছাড়া আরও একটি নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে বাজার মূলধনেও। দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৮৯ হাজার ১৬০ কোটি টাকায়। যা আগের দিন ছিল ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৫৮ কোটি টাকা।

আজ (সোমবার) ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ১৭৮টি বা ৫৪ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। অপরদিকে দাম কমেছে ১২১টি বা ৩৭ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টি বা ৯ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম।

এ দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ২৬৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ১ হাজার ১৬০ কোটি ৪১ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১০৪ কোটি ২ লাখ টাকা। এর ফলে বাজারটিতে টানা দুই কার্যদিবস লেনদেন বাড়লো।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সোমবার সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে কেয়া কসমেটিকসের শেয়ার। কোম্পানির ৫৭ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা সাইফ পাওয়ারের লেনদেন হয়েছে ৩২ কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার। ২৮ কোটি ৮৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বেক্সিমকো।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- কনফিডেন্স সিমেন্ট, প্রাইম ব্যাংক, ফু-ওয়াং ফুড, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, অলেম্পিক এক্সসরিজ, অ্যাপোল ইস্পাত এবং বিবিএস।

দেশের অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সোমবার সিএসসিএক্স সূচক ৯৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৯১৬ পয়েন্টে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৮১ কোটি ৩২ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৬৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪৪টির। অপরদিকে দাম কমেছে ৯০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টি শেয়ারের দাম।