জলবায়ু ইস্যুতে ট্রাম্পের অবস্থানে বিশ্বনেতারা হতাশ

নিউজ ডেস্ক: জলবায়ু ইস্যুতে নিজের অবস্থানে অনঢ় রয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার এমন অবস্থানে হতাশ বিশ্ব নেতারা। জি-২০ সম্মেলনের শেষে এ বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল।

শনিবার হামবুর্গে মেরকেল দুই দিনের জি-২০ সম্মেলনে বলেন, রাজপথে বিক্ষোভ সমাবেশকে অতিক্রম করেও ভালো ফলাফল পাওয়া গেছে। ট্রাম্প এবং যুক্তরাষ্ট্রকে নিয়ে বাণিজ্যে একটি চুক্তির বিষয়টিকে তিনি কষ্টার্জিত অর্জন বলেও উল্লেখ করেছেন।

প্যারিস জলবায়ু চুক্তির প্রতিশ্রুতি রক্ষার বিষয়ে বিশ্বের উনিশ নেতা একমত হলেও নিজের অবস্থান ভিন্ন রেখেই সম্মেলন শেষ হওয়ার আগে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে গেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রথা অনুযায়ী শেষদিনের সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প অংশ নেননি।

প্যারিসে জলবায়ু সম্মেলনে যেসব চুক্তি হয়েছে সেগুলো রক্ষার বিষয়ে পুনরায় প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন শীর্ষ নেতারা।

যুক্তরাষ্ট্র জলবায়ু চুক্তি থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নেয়ায় জি-২০ সম্মেলনের প্রথমদিকে কিছুটা খাপ ছাড়া অবস্থা তৈরি হয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রকে বাদ দিয়েই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিশ্বনেতারা।

জলবায়ু চুক্তিতে বিশ্বনেতারা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের থাকা না থাকায় প্যারিস চুক্তির ব্যাপারে তারা তাদের প্রতিশ্রুতি থেকে সরে যাবেন না এবং ওই চুক্তির বিষয়ে পুনরায় আলোচনারও সুযোগ নেই।

যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান পরিস্কার হওয়ায় তুরস্ক জানিয়েছে, উন্নয়নশীল দেশগুলোকে যে ক্ষতিপূরণ দেয়ার কথা বলা হয়েছে সেটা কতটা কার্যকর হবে তা নিয়ে তাদের সন্দেহ আছে।

সম্মেলনে এক বক্তব্যে মেরকেল বলেন, ‘এই সম্মেলনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু ছিল জলবায়ু এবং শক্তি। এ বিষয়টি পুরোপুরি পরিস্কার। আপনারা জানেন দুর্ভাগ্যবশত যুক্তরাষ্ট্র জলবায়ু ইস্যু থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নিয়েছে।’

তবে ট্রাম্প বা যুক্তরাষ্ট্র জলবায়ু চুক্তি প্রত্যাহার করলেও বাকি দেশগুলো এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন সর্বসম্মতিক্রমে প্যারিস জলবায়ু চুক্তি সমর্থন করে যাবে বলে সম্মেলনে জানানো হয়েছে।