সাম্মানিক নাগরিকত্ব পেলেন ম্যারাডোনা

নিউজ ডেস্ক: যে ক্লাবের জন্য নিজের সেরাটা উজাড় করে দিয়েছেন, সেই ক্লাবটি তো দিয়েগো ম্যারাডোনাকে মনে রাখবেই। হ্যাঁ, ইতালিয়ান নাপোলি তাকে ভোলেনি। ভুলবেও না কোনোদিন! আর যে নেপলসে প্রায় ৭টি বছর কাটিয়েছেন, ইতালির সেই শহরটি ম্যারাডোনাকে ভোলেনি। দিয়েছে সাম্মানিক নাগরিকত্ব।

১৯৮৪ সালে বার্সেলোনা ছেড়ে নাপোলিতে পাড়ি জমান ম্যারাডোনা। ইতালিয়ান ক্লাবটিতে তাকে আনতে রাজি করান তৎকালীন প্রেসিডেন্ট কোরাডো ফারলাইনো।

এরপর নাপোলিকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যান আর্জেন্টাইন কিংবদন্তী। ম্যারাডোনার হাত ধরেই ইতিহাস গড়েছিল নাপোলি। ক্লাবকে দুবার ইতালিয়ান লিগ জিতিয়েছিলেন, একবার জিতিয়েছিলেন উয়েফা কাপও।

আর্জেন্টাইন রাজপুত্রের কাঁধে ভর করে ইতালি ফুটবলে শীর্ষে উঠে এসেছিল নাপোলি। ঘরোয়া লিগে চ্যাম্পিয়ন করা ছাড়াও অনেক খেতাব এনে দিয়েছেন তিনি।

আন্তর্জাতিক ও ক্লাব ফুটবলকে ম্যারাডোনা বিদায় বলে দিয়েছেন অনেক আগেই। আর নাপোলি ছেড়েছেন ১৯৯১ সালে। তাতে কী! রূপকথার নায়ক এখনও রয়েছেন নাপোলি ভক্তদের হৃদয়ে। সাবেক তারকাকে এক ঝলক দেখতে সম্মানজ্ঞাপন অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন হাজার হাজার দর্শক।

রাজকীয় অভ্যর্থনায় দারুণ খুশি ম্যারাডোনা। গাড়ির ছাদে উঠে ভক্তদের উদ্দেশ্যে হাত নাড়েন তিনি। অভিবাদনের জবাব দেন। এরপর পানীয় নিয়ে কেক কেটে উৎসবে মাতেন ম্যারাডোনা।