সুন্দরবনে গুরু বাহিনীর প্রধানসহ গ্রেপ্তার ২

নিউজ ডস্ক: সুন্দরবনের বনদস্যু ‘গুরু’ বাহিনীর প্রধান গুরুসহ দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এসময় তাদের কাছ থেকে দেশীয় তৈরি পাঁচটি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। বুধবার বেলা ১২টার দিকে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের পশুর নদী সংলগ্ন নন্দবালা খাল এলাকায় অভিযান চালায় র‌্যাব।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- মো. আনিস মোল্লা ওরফে গুরু (৩৪) এবং তার সহযোগি আকরাম সানা (৩৫)। এদের বাড়ি বাগেরহাটে। উদ্ধার হওয়া অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে দুটি একনলা বন্দুক, দুটি দোনলা বন্দুক, একটি এলজি ও ৬৩টি বিভিন্ন ধরনের গুলি।

র‌্যাব-৮ এর উপঅধিনায়ক মেজর আদনান কবির বলেন, সম্প্রতি মো. আনিস মোল্লা ওরফে গুরু নামে এক যুবক ৬-৭ জনকে নিয়ে একটি দস্যু বাহিনী গড়ে তোলেন। গুরু নামে এই বাহিনীটি বেশ কিছুদিন ধরে সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের অল্প কিছু এলাকায় চাঁদাবাজি করছিল বলে জেলেরা অভিযোগ করে।

বুধবার জেলেদের কাছ থেকে খবর পেয়ে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের পশুর নদী সংলগ্ন নন্দবালা খাল এলাকায় জেলে নৌকায় চাঁদাবাজির প্রস্তুতি নিচ্ছে এই গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল সেখানে অভিযানে যায়। এসময় তারা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে নৌকা থেকে পালানোর চেষ্টা করলে ধাওয়া করে গুরু বাহিনীর প্রধান আনিস মোল্লা ওরফে গুরু ও তার অন্যতম সহযোগী আকরাম সানাকে গ্রেপ্তার করে।

তাদের নৌকায় তল্লাশি চালিয়ে পাঁচটি দেশীয় অস্ত্র ও ৬৩টি গুলি উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা বাহিনী গঠন করে চাঁদাবাজির কথা স্বীকার করেছে বলে দাবি করেন ওই র‌্যাব কর্মকর্তা।  তাদের বাগেরহাটের মংলা থানায় নিয়ে আসা হচ্ছে বলে জানিয়েছে ব্যাব।