রাউজানে বন্যায় রাস্তাঘাটের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

এম বেলাল উদ্দিন রাউজান চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের রাউজানে গত এক সাপ্তাহের টানা ভারী বর্ষনে ঘর বাড়ী রাস্তাঘাট পুল কালভাট সহ ব্যাপক ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার আগেই আবারো গতকাল রবিবার দুপুর নাগাদ থেমন বৃষ্টিছাড়া খড়¯্রােত সর্তাখালের ভাঙ্গা বেড়িবাঁধ দিয়ে পাহাড়ী ঢলের পানি ঢুকে হলদিয়া ইউনিয়ন আবারো প্লাবিত হয়েছে। গতকাল সকাল সাড়ে ১১টার দিকে হঠাৎ সর্তাখালের পানি বৃদ্ধি পেয়ে গত মঙ্গলবারের ক্ষতিগ্রস্থ বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি ঢুকে পড়লে হলদিয়া ,ডাবুয়া,চিকদাইর সহ বিভিন্ন এলাকা নতুন ভাবে প্লাবিত হয়।

দুপুর থেকে রাউজান সদরের সাথে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। তীব্র পানির ¯্রােতে হলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের নতুন ভবন হুমকির মুখে পড়েছে। রাস্তাঘাটের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। হলদিয়া ভিলেজ সড়কের উপর দিয়ে কোমড় সমান পানি গড়িয়ে পড়ে। গত মঙ্গলবারের ব্যাপক বন্যায় রাউজানে ৫০ কোটি টাকার ক্ষতি সাধিত নির্ণয় করলেও গতকালের বন্যায় তা শত কোটি ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারনা করা হচ্ছে। হলদিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন অংশে সাময়িক মেরামতকৃত রাস্তাঘাট গতকালের তীব্র ¯্রােতে আবারো তলিয়ে গেছে। হলদিয়া ইউনিয়নে স্বরনকালের বন্যায় দুইশত ৭৪ টি বসত ঘর নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি অনেকের পুকুড়ের মাছ পানিতে ভেসে গেছে।

হলদিয়া রাবার বাগান এলাকার সৈয়্যদ হুসেন মিয়া ও সরোয়ার মেম্বারের প্রায় ৬০ লক্ষ টাকার প্রজেক্টের মাছ ভাষিয়ে গেছে বলে তারা জানান। বন্যার পানিতে এয়াছিনশাহ পাবলিক কলেজের অফিস কক্ষে হাটু সমান পানি ঢুকে কলেজের সংরক্ষিত জরুরী কাগজপত্র ভিজে নষ্ট হয়েগেছে। এদিকে হলদিয়ার সাথে সমস্ত এলাকার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। হাজার হাজার মানুষ পানি বন্দি রয়েছে। ডাবুয়ার আমির চৌধুরী বাড়ী এলাকার ঘরবাড়ী তে পানি ঢুকে পড়েছে। ঘনিপাড়া এলাকায়ও ব্যপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

সর্তাখালের হলদিয়া ইউনিয়নে ১২/১৪টি পয়েন্টে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে গেছে। গতকালের তীব্র পানির ¯্রােতে হলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বলেন মঙ্গলবারের পর আমরা রাস্তাঘাটের কিছু সংস্কার কাজ হাতে নিয়েছিলাম এগুলো গতকালের পানির তীব্র স্রোতে নষ্ট করে ফেলেছে। রাউজানের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর মতে রাউজানের সাজানো গোছানো উন্নয়ন বণ্যার পানিতে শেষ করে ফেলেছে।

গতকাল তীব্র স্রোতের মাঝেও রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম হোসেন হলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের অদুরে হাটু সমান পানিতে দাড়িয়ে নির্বাক হয়ে তাকিয়ে দেখছিলেন পাহাড়ী ঢলের তীব্রতা। বন্যায় রাস্তাঘাটের ব্যাপক ক্ষতিতে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। রাত ৮টায় এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাহাড়ী ঢলের তীব্রতা কিছুটা কমলেও রাস্তাঘাটের উপরদিয়ে পানি গড়িয়ে পড়ছিল। সব মিলিয়ে সরকারীভাবে দ্রুত প্রদক্ষেপ না নিলে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থা দাড়াবে।