ঈশ্বরদীতে বিড়ি শ্রমিকের বিক্ষোভ সমাবেশ

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতা: ঈশ্বরদী উপজেলার সাঁড়া ইউনিয়নের গকুলনগরে অবস্থিত আকিজ বিড়ি ফ্যাক্টরী লিমিটেড এর বিড়ি শ্রমিক ও কর্মচারীরা ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের বাজেটে সিগারেটের তুলনায় বিড়ির উপর বৈষম্যমুলক শুল্কনীতি ঘোষণার প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। গতকাল বৃহস্প্রতিবার বিকেলে বিমান বন্দর সড়কের রাজু সিনেমা হলের সামনে মহাসড়কে টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।

সিগারেটের তুলনায় বিড়ির উপর অতিরিক্ত শুল্ক ঘোষনায় বিড়ি ফ্যাক্টরী বন্ধ হয়ে গেলে ঈশ্বরদীর এক হাজারের বেশি আকিজ বিড়ির নারী-পুরুষ শ্রমিক-কর্মচারী বেকার হয়ে পড়বে। কাজ না থাকলে এসব শ্রমিকদের অনেকের ছেলে-মেয়ের উচ্চ শিক্ষায় পড়াশুনা বন্ধ হয়ে যাবে। সিগারেটের তুলনায় বিড়ির উপর বৈষম্যমুলক শুল্কনীতি ঘোষণার প্রতিবাদে ওই ফ্যাক্টরীর শ্রমিকেরা বিমান বন্দর সড়কের রাজু সিনেমা হলের সামনে মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।

শ্রমিকেরা বলেন, আমাদের এই কাজ ছাড়া অন্য কিছুই জানা নেই। কাজ না থাকলে আমাদের পথে বসতে হবে। ছেলে-মেয়েদের পড়াশুনা বন্ধ হয়ে যাবে। প্রচুর খাটুনি করে সামান্য মজুরী পেয়ে আমাদের ছেলে-মেয়েদের পড়াশুনা এবং সংসার চালাতে হয়। ঈশ্বরদীস্থ আকিজ বিড়ি শ্রমিকদের অনেকের ছেলে-মেয়ে স্নাতক উচ্চ শিক্ষায় বিভিন্ন কলেজ বিশ্ব বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছেন। শ্রমিক তাছের প্রামানিকের মেয়ে বিএ অনার্স তৃতীয় বর্ষে, শিউলী বিশ্বাসের মেয়ে অনার্স প্রথম বর্ষে, শহিদুল প্রামানিকের ছেলে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষে, কালাচাঁদের মেয়ে অনার্স দ্বিতীয় বর্ষে, শ্রমিক আবু তালেবের মেয়ে বিএ শেষ বর্ষে অধ্যয়নরত রয়েছেন, মরিয়ম বেগম ও মাবিয়া খাতুনের মেয়ে এইচ এসসিতে অধ্যয়নরত।

শ্রমিকেরা বিড়ির উপর অতিরিক্ত শুল্ক কমানোর দাবি তোলেন। তারা বলেন, বিড়ির উপর অতিরিক্ত শুল্ক আরোপ করা হলে ফ্যাক্টরী বন্ধ হয়ে যাবে। ফ্যাক্টরী বন্ধ হলে এক হাজারের বেশি শ্রমিক কর্মচারীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়বে। শ্রমিকেরা আরও বলেন, বিদেশীদের চক্রান্তে বিড়ি শিল্পকে ধ্বংস করা যাবেনা। শ্রমিক বাঁচাও, হাতে তৈরী বিড়ি শিল্প বাঁচাও। কম মূল্যের সিগারেটের ট্যাক্্র বৃদ্ধি করতে হবে।