ঈদে দেশে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই: আইজিপি

নিউজ ডেস্ক: পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক বলেছেন, বনানী থেকে নিখোঁজ তরুণরা জঙ্গি কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত কি-না, তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

শুক্রবার রাজারবাগ পুলিশলাইন্স কেন্দ্রীয় মসজিদে আজান, কিস্ফরাত ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি। আইজিপি আরও বলেন, এবারের ঈদে দেশে কোনো জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই।

গুলশানের হলি আর্টিসান বেকারি ও শোলাকিয়ায় হামলার পর আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী জঙ্গিদের নির্মূলে সফল হয়েছে।

চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে রাজধানীর বনানীর একটি তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের তিন কর্মী রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হন। এ ঘটনায় করা জিডির তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, তাদের আরও এক বন্ধু নিখোঁজ রয়েছেন। এর আগে এভাবে ঘর ছাড়া তরুণদের অনেকেই জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ায় এই চারজনের ব্যাপারেও সন্দেহ হয় তদন্ত সংশ্লিষ্টদের।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মধ্যে সনদ ও পুরস্কার বিতরণ করেন আইজিপি।

প্রতিযোগিতা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ডিআইজি মহসিন হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে এসবির প্রধান অতিরিক্ত আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, অতিরিক্ত আইজিপি মইনুর রহমান চৌধুরী, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া, রেলওয়ে পুলিশের অতিরিক্তি আইজিপি আবুল কাশেমসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিযোগিতার আজান বিভাগে ডিএমপির নায়েক সাইফুল ইসলাম প্রথম, নৌ-পুলিশ ঢাকার এএসআই এম মহিউদ্দিন দ্বিতীয় ও বরিশাল জেলা পুলিশের এএসআই আবুল বাশার তৃতীয় হয়েছেন। কিরাতে রাঙামাটি জেলার এএসআই রুহুল আমীন প্রথম, সিলেট মহানগর পুলিশের কনস্টেবল মজিবুর রহমান দ্বিতীয় ও নায়েক সাইফুল ইসলাম তৃতীয় হয়েছেন। এ ছাড়া ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে ইসলামের ভূমিকা’ শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতায় ডিএমপির এএসআই জাহাঙ্গীর আলম প্রথম, পুলিশ সদর দপ্তরের উচ্চমান সহকারী মোহাম্মাদ আনিসুর রহমান দ্বিতীয় ও সিআইডি ঢাকার স্টেনো টাইপিস্ট ওমর ফারুক তৃতীয় হয়েছন।