নতুন সরকার গঠনে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে: মির্জা ফখরুল

নিউজ ডেস্ক: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন বিএনপি কী চায় তারা তা বুঝতে পারে না। বুঝবেন কোত্থেকে? আপনাদের তো চোখ অন্ধ হয়ে গেছে আর কান বধির হয়ে গেছে। একটা কথা আপনারা ভুলে যাবেন না যে, অন্ধ হলে প্রলয় বন্ধ হয় না, বধির হলে বজ্রপাত চলতেই থাকে, এটা চলবে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা যে কাজগুলো করছেন প্রলয় হবেই, আপনারা মানবতার বিরুদ্ধে যে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন, আপনারা সাধারণ মানুষদের নিয়ে নিয়ে হত্যা করছেন, তাদেরকে জেলে নিয়ে মিথ্যা মামলা দিচ্ছেন, এর একদিন বিচার হবেই এবং আপনাদেরকে অবশ্যই জনগণের কাছে জবাবদিহিতা করতে হবে।

নিখোঁজ হয়ে যাওয়া নেতা-কর্মীদের পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করে মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকার গত কয়েক বছরে বিরোধীদলের অসংখ্য নেতা-কর্মীকে গুম করেছে, খুন করেছে, আহত করেছে, পংগু করেছে। হাজার হাজার নেতা-কর্মীকে তারা মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে পুরেছে, এখনো সেই কাজটি তারা করে যাচ্ছে। এজন্য সরকার পরিবর্তনে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

শনিবার বিকেলে রাজধানীর রাজারবাগে ‘লিভিং ইন পার্টি সেন্টার’ এ এক অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব এই মন্তব্য করেন। জাতীয়তাবাদী দলের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের আর্থিক সহযোগিতা প্রদানের জন্য এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ‘অর্পন বাংলাদেশ’ নামের একটি সামাজিক সংগঠন। অনুষ্ঠানে দলের ক্ষতিগ্রস্ত ৭ পরিবারকে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়।

ফখরুল বলেন, একটি কথা খুব পরিস্কার করে আমরা বলতে চাই, এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে দেশ থাকবে না, এই সরকার থাকলে এদেশের মানুষ তাদের অধিকার কখনো ফিরে পাবে না, মানুষের কোনো নিরাপত্তা থাকবে না। এটা একটা সম্পূর্ণ নতজানু পরনির্ভরশীল রাষ্ট্র হয়ে থাকবে। আমরা এই সরকারের পরিবর্তন চাই। এজন্য সমগ্র জাতিকে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে, এই সরকারকে সরিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। যাতে করে জনগণ তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে পারে।

তিনি বলেন, এই সরকার বুঝে গেছে, জনগণের সমর্থন তাদের নেই, সেজন্য এরা এখন নির্যাতন-নিপীড়ন-দমন ছাড়া তাদের টিকে থাকার আর কোনো পথ নেই।

সংগঠনের সভানেত্রী বিথীকা বিনতে হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য তাহসিনা রুশদীর লুনা, আবুল খায়ের ভুঁইয়া, প্রচার সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, কেন্দ্রীয় নেতা শফিউল বারী বাবু, হাবিবুর রশীদ হাবিব, আমিরুজ্জামান খান শিমুল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।