শান্তি স্থাপনে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই: নাসিম

নিউজ ডেস্ক: দেশের ব্যাপক উন্নয়ন ও জঙ্গি দমনে অবদানের জন্য শেখ হাসিনাকে আবারো ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও শান্তি স্থাপনে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই।

এবারের বাজেট সত্যিকার অর্থেই উন্নয়ন ও জনগণের স্বার্থ রক্ষার বাজেট উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, দেশের মানুষের আয় বেড়েছে, দেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে।

শনিবার দুপুরে সিরাজগঞ্জে নির্মাণাধীন শহীদ এম মনসুর আলী মেডিক্যাল কলেজের কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন এবং বিকেলে জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় যোগদান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেলা প্রশাসন আয়োজিত অফিসার্স ক্লাবে ইফতার মাহফিলে অংশ নেন।

বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতীয় প্রবৃদ্ধির হারও বেড়েছে উল্লেখ করে নাসিম বলেন, শেখ হাসিনা সরকার পদ্মাসেতু নির্মাণসহ দেশে উন্নয়নের বিশাল কর্মযজ্ঞ শুরু করেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পার সিরাজগঞ্জের শিয়ালকোলে ৩০ একর জমির উপর নির্মাণ করা হচ্ছে শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ। এছাড়াও সিরাজগঞ্জে যমুনা নদী শাসন, স্বাস্থ্য বিভাগের আড়াই শ’ শয্যার হাসপাতাল ভবন, আই এইচটি ভবন, রাস্তা ঘাট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্মাণ প্রকল্প প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান।

এ সময় মন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক কামরুন্নাহার সিদ্দিকা, পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ, সিভিল সার্জন ডা. শেখ মোঃ মনজুর রহমান, প্রকল্প পরিচালক ডাঃ মোঃ বাকির হোসেন, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়ারুল আজিম, স্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহিী প্রকৌশলী জাকির হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবু ইউসুফ সূর্য্য, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী ইসহাক আলী, সাধারণ সম্পাদক দানিউল হক দানি, সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান দুদুসহ অন্যরা।

জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক কামরুন্নাহার সিদ্দিকা। এ সময়ে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ বিশ্বাস, অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না এমপি, হাসিবুর রহমান স্বপন এমপি, আমজাদ হোসেন মিলন এমপি, সেলিনা বেগম স্বপ্না এমপি।

পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ সার্বিক আইন শৃঙ্খলা বিষয়ে প্রতিবেদন তুলে ধরেন।