কারিগরি শিক্ষার প্রসারে সরকার সহযোগিতা করছে: শিক্ষামন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, শিক্ষা আমাদের অগ্রাধিকার। কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা আমাদের অগ্রাধিকারের অগ্রাধিকার। এর প্রসারে সরকার সব ধরনের সহযোগিতা দিবে। কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার মাধ্যমেই দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা সম্ভব। এ দক্ষ জনশক্তি দেশের উন্নয়নের ভিত্তি হিসেবে কাজ করবে। দেশের বাইরেও দক্ষ জনবল কাজ করার সুযোগ পাবে।

মন্ত্রী আজ ঢাকায় ইনস্টিটিউট অভ্ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইডিইবি) ভবনে বাংলাদেশ প্রাইভেট পলিটেকনিক ওনার্স এসোসিয়েশন (বিপিপিওএ)-এর ২য় জাতীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ২০০৯ সালে মোট শিক্ষার্থীর মাত্র শতকরা এক ভাগ কারিগরি শিক্ষায় পড়াশোনা করত, যা সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টায় ১৪ ভাগে উন্নীত হয়েছে। ২০২০ সালে তা শতকরা ২০ ভাগে উন্নীত করা হবে। তিনি বলেন, কারিগরি শিক্ষার বিস্তার ঘটাতে সরকারি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানেরও অনুমোদন দেয়া হয়েছে। বর্তমানে দেশে ৪শ’ ৬৭টি বেসরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। ৭ হাজার ৭৫৩টি ভোকেশনাল স্কুলের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। স্টেপ প্রকল্পের মাধ্যমে ১৬২টি বেসরকারি কারিগরি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, সকল শিক্ষার্থীই আমাদের দেশের ভবিষ্যৎ। তাই তাদেরকে সমান সুযোগ দিতে হবে।

বিপিপিওএ’র সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোঃ শামসুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মোঃ নজরুল ইসলাম বাবু, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ আলমগীর, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অশোক কুমার বিশ্বাস এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মোস্তাফিজুর রহমান।