আমলার সেঞ্চুরিতে দ. আফ্রিকার ৩০০ রানের চ্যালেঞ্জ

নিউজ ডেস্ক:  হাশিম আমলার ক্যারিয়ারের ২৫তম সেঞ্চুরির উপর ভর করে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকাকে ৩০০ রানের লক্ষ্য দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। শনিবার ওভালে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৯৯ রান করে প্রোটিয়ারা।

শনিবার ওভালে মেঘাচ্ছন্ন আকাশে ইনজুরিগ্রস্ত অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজের জায়গায় ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক উপুল থারাঙ্গা ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন। ধীরস্থির শুরু করে দলীয় ৪৪ রানে ওপেনার কুইন্টন ডি ককের উইকেটটি হারায় দ. আফ্রিকা। নুয়ান প্রদীপের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান দক্ষিণ আফ্রিকার ওপেনার কুইন্টন ডি কক। আউট হওয়ার আগে ৪২ বল খেলে ২৩ রান করে ডি কক। ব্যক্তিগত ৮ রানে ডু প্লেসিসের সহজ ক্যাচ মিস করেছেন লাসিথ মালিঙ্গা।

এরপর ডু প্লেসিসকে নিয়ে জুটি গড়ে তুলে ধীরে ধীরে দ. আফ্রিকার ইনিংস বড় করছেন আমলা। ফিফটি করেন ডু প্লেসিসও। আমলা-ডু প্লেসিসের ১৪৫ রানের জুটি ভাঙেন নুয়ান প্রদীপ। ৩৪তম ওভারে দ. আফ্রিকার দলীয় ১৮৯ রানে চান্ডিমালের হাতে ধরা পড়েন ডু প্লেসিস। আউট হওয়ার আগে ৭০ বলে ৬টি চারের ৭৫ রান করেন তিনি।

এরপর ডি ভিলিয়ার্সকে মাত্র ৪ রানে ফেরত পাঠান সেকুগে প্রসন্ন। দলীয় ২২৬ রানে লাকমলের শিকারে পরিণত হন ডেভিড মিলার। ইনিংসের ৪২তম ওভারে প্রসন্নর হাতে ধরা পড়ার আগে ১৮ রান করেন তিনি। এরপর নিজের ২৫তম সেঞ্চুরিটি তুলে নিয়ে রান আউট হয়ে যান আমলা। মেন্ডিসের থ্রোতে দলীয় ২৩২ রানে ব্যাটিং প্রান্তে রানআউট হওয়ার আগে ১১৫ বল খেলে ১০৩ রান করেন আমলা।

আমলা আউট হওয়ার পরে শেষ ৪৫ বলে ৬৯ রান করে দ. আফ্রিকা। ক্রিস মরিস ২০ রান করে রানআউট হন। তবে জেপি ডুমিনি ২০ বলে ৩৮ রান করে অপরাজিত থাকেন, তার সঙ্গে উইকেটে ছিলেন পারনেল। নুয়ান প্রদীপ ২টি এবং লাকমল ও প্রসন্ন ১টি করে উইকেট লাভ করেন। প্রত্যাবর্তন ম্যাচে কোনো উইকেট পাননি মালিঙ্গা। উল্লেখ্য, শ্রীলংকা ওয়ানডে একাদশে ১৯ মাস পরে ফিরেছেন লাসিথ মালিঙ্গা।