রাশিয়ায় তৈরি পণ্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে: তোফায়েল

নিউজ ডেস্ক : বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশ রাশিয়ার সাথে বাণিজ্যবৃদ্ধি করতে আগ্রহী। এ অঞ্চলে বাংলাদেশের তৈরি পণ্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। আর্মেনিয়া, বেলারুশ, কাজাখস্তান, কিরগিজস্তান এবং রাশিয়ান ফেডারেশনের সমন্বয়ে গঠিত ইউরেশিয়ান ইকোনমিক ইউনিয়নের সাথে বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা পাওয়ার লক্ষ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের বিষয়ে বাংলাদেশ নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

এতে করে বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্য অনেক বৃদ্ধি পাবে এবং দেশগুলো তুলনামূলক কমমূল্যে বাংলাদেশের পণ্য ক্রয়ের সুযোগ পাবে। ইউরেশিয়ান ইকোনমিক ইউনিয়নের সাথে এমওইউ এবং সাংহাই করপোরেশন অর্গানাইজেশন ফোরামে যোগদানের মাধ্যমে বাংলাদেশের বৈদেশিক বাণিজ্যের নতুন দ্বার উন্মোচিত হবে।

মন্ত্রী গতকাল রাতে (১ জুন) রাশিয়ায় সেন্ট পিটার্সবার্গ ইন্টারন্যাশনাল ইকোনমিক ফোরামে (এসপিআইইএফ) প্যানেলিস্ট হিসেবে বক্তব্য প্রদানের সময় এসব কথা বলেন। প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ইরানের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিমন্ত্রী মাহমুদ ডেইজি (গধযসঁফ ফধবুর), সাংহাই করপোরেশন অর্গানাইজেশেনের সেক্রেটারি জেনারেল রশিদ অলিমভ, রাশিয়ান ফেডারেশনের ইকোনমিক ডেভেলপমেন্টের ডেপুটি মিনিস্টার এলেক্সি গুজডেভ (অষবীবু এুঁফবা), এসসিও বিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধি বখতিয়ার খেকিমভ (ইধশযঃরবৎ কযবশরসড়া)।

মন্ত্রী বলেন, চীন, কাজাখস্তান, কিরগিজস্তান, রাশিয়া, তাজিকিস্তান এবং উজবেকিস্তানের সমন্বয়ে গঠিত সাংহাই করপোরেশন অর্গানাইজেশন ফোরামে প্রথমে পর্যবেক্ষক এবং পরে পূর্ণাঙ্গ সদস্য হিসেবে যোগদান করতে বাংলাদেশ আগ্রহী। এ বিষয়ে কার্যক্রম চলছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের উপস্থিতিতে গ্যাজ প্রোন প্যাভিলিয়নে বাংলাদেশের জ¦ালানি খাতে সহযোগিতার সমঝোতা স্বারক স্বাক্ষরিত হয়। বাংলাদেশের পক্ষে জ¦ালানি ও খনিজ সম্পদ সচিব নজিমউদ্দিন চৌধুরী এবং রাশিয়া সরকারের পক্ষে রাশিয়ান ফেডারেশনের জ¦ালানি মন্ত্রণালয়ের ফার্স্ট ডেপুটি মিনিস্টার এলেক্সি টেক্সলার স্বাক্ষর করেন। এ সময় রাশিয়া ফেডারেশনের সিনিয়র অফিসারগণ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া রাশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাইফুল হক, কমার্শিয়াল কাউন্সিলর মো. আশফাকুল ইসলাম বাবুল এবং গ্যাজ প্রোন এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি অনিরুদ্ধ রায় উপস্থিত ছিলেন।