কেন খাবেন বরবটি?

নিউজ ডেস্ক: বরবটি। মৌসুমী সবজি হলেও এটি এখন বারো মাসই পাওয়া যায়। নুডুলস, রোল, ভাজি, ভর্তা অথবা সবজি হিসেবে বরবটির ব্যবহার চলে দারুণভাবে। খাবারে স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি চমৎকার কিছু পুষ্টির উৎস এই সবজি। নানা পুষ্টিমানেই ভরপুর বরবটি কিন্তু স্বাস্থ্যের জন্যও খুব উপকারি। বরবটির গুণাগুণ সম্পর্কে পুষ্টিবিদরা বলেন, বরবটি আমিষসমৃদ্ধ একটি সবজি। বিশেষ করে যাদের মাছ-মাংস কেনার সামর্থ্য কম তাদের প্রোটিনের চাহিদা পূরণ করে। এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘এ’ ও ‘সি’ এবং বিশেষ করে সবুজ বরবটিতে বেশ ভালো পরিমাণে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, আয়রন ও পটাশিয়ামের মতো খনিজ আছে। এই উপাদানগুলো আমাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

এবার জেনে নিন বরবটির নানা গুণ সম্পর্কে-

হার্টের সুরক্ষায়

বরবটিতে প্রচুর উপকারি আঁশ থাকায় তা শরীরের ক্ষতিকর কলেস্টেরলের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। ফলে হার্টের সুরক্ষা নিশ্চিত হয়। এছাড়া এটি উচ্চ রক্তচাপ, বুক জ্বালাপোড়া প্রভৃতি সমস্যা দূর করতেও ভূমিকা রাখে।

ক্যান্সারের সম্ভাবনা কমায়

বরবটিতে ফ্ল্যাভোনয়েড নামে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। এর দুটি উপাদান ক্যাম্পফেরল ও কুয়ারসেটিন ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই কমিয়ে আনে। অস্ট্রেলিয়ার ডেকিন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় দেখা গেছে, এই দুই উপাদান ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধি রোধে চমৎকার কাজ করে।

হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধিতে

সিলিকন বিদ্যমান থাকায় বরবটি হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধি করে। এছাড়া হাড় শক্ত করতে প্রয়োজনীয় ক্যালিসিয়ামও পাওয়া যায় বরবটির বীজে।

আয়রনের ঘাটতি মেটায়

ভিটামিন সি শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় আয়রন পরিশোষণে ভূমিকা রাখে। সালাদে কাঁচা বরবটি খেলে তা থেকে প্রচুর ভিটামিন সি পাওয়া যায়। তাছাড়া বরবটিতেও রয়েছে যথেষ্ট পরিমাণ আয়রন। যা আপনার শরীরের আয়রনের ঘাটতি পূরণে সাহায্য করে।

চর্বি কমাতে সাহায্য করে

বরবটিতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে, যা শরীর থেকে দূষিত যৌগগুলোকে বের করে দেয়। ফলে সহজে শরীরে চর্বি জমতে পারে না। এছাড়া কম ক্যালরিযুক্ত খাদ্য ও ফ্যাট-কলেস্টেরল না থাকায় এটি পেট ভরে খাওয়াও যায়। এতে করে ক্ষুধাভাব কম হয়।

অস্থিসন্ধির ব্যথা কমায়

সালাদের বাটিতে প্রতিদিন ২৫০ মিলিগ্রাম কাঁচা বরবটি মিশিয়ে নিন। এতে আপনি আপনার প্রতিদিনের ভিটামিন ‘কে’-এর ১৯ শতাংশ মেটাতে পারেন। ভিটামিন কে অস্টিওআর্থারাইটিস সমস্যা থেকে অস্থিসন্ধির যত্ন নেবে। আর রক্ত জমাট বাঁধতে ভিটামিন কে- এর ভূমিকার অপরিসীম।

ডায়াবেটিস থেকে বাঁচায়

ডায়াবেটিসের হাত থেকে রক্ষা করতেও বরবটির ভূমিকা অনেক। একইসঙ্গে চুল পড়ে যাওয়া ঠেকাতেও ভূমিকা রয়েছে বরবটির।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

বরবটির খারাপ দিক খুব কম। নেই বললেই চলে। তবে যাদের রক্তে চিনি অনেক বেশি তাদের বারবার না খাওয়াই ভালো। অন্যদিকে যাদের কিডনিতে ক্রিয়েটিনিনের সমস্যা এবং যাদের গেঁটে বাত আছে তাদের বরবটি পরিহার করাই উচিত।